‘অভিনয় আর করতে চাই না’

 

32841_doly-sddddayontony-1
দীর্ঘ সময় ধরে সংগীত জগতে সফলতার সঙ্গে পথ চলছেন জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী ডলি সায়ন্তনি। ধারাবাহিকভাবে অডিও অ্যালবামের মাধ্যমে অনেক শ্রোতাপ্রিয় গান তিনি উপহার দিয়েছেন । তবে মধ্যে কয়েক বছর নতুন গান থেকে দূরে ছিলেন এ গায়িকা। কেবল স্টেজ ও প্লেব্যাকে ব্যস্ত ছিলেন তখন। অবশ্য গত দুই বছর ধরে আবারও নতুন গানে ব্যস্ত হয়েছেন এ শিল্পী। অ্যালবাম, প্লেব্যাক ও স্টেজে আগের মতো করেই এখন সরব ডলি। তারই ধারাবাহিকতায় বর্তমানে ব্রুনাই সফরে রয়েছেন। সেখানে প্রবাসীদের আয়োজনে শো করতে গিয়েছেন। তার সফরসঙ্গী হিসেবে রয়েছেন আসিফ আকবর, আঁখী আলমগীর ও সোহেল মেহেদী। ব্রুনাই যাওয়ার আগের দিন মানবজমিনের সঙ্গে তার কথা হয় সংগীতের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে। কদিন আগেই আপনার নতুন একক অ্যালবাম প্রকাশ হয়েছে। সাড়া কেমন পাচ্ছেন? ডলি সায়ন্তনি বলেন, সেটার সঠিক উত্তর দিতে পারবেন সাউন্ডটেরকর কর্ণধার সুলতান মাহমুদ বাবুল ভাই। কারণ সাউন্ডটেক থেকেই ‘একলা হবি’ শিরোনামের এ অ্যালবামটি প্রকাশ হয়েছে। ৫ টি গান দিয়ে সাজানো হয়েছে অ্যালবামটি। আমার দিক থেকে বলবো বেশ ভালো সাড়া পাচ্ছি। অনেকেই প্রশংসা করছেন। সব মিলিয়ে আমি হ্যাপি অ্যালবামটি নিয়ে। খুব শিগগিরই এ গানগুলো থেকে ভিডিও প্রকাশ হবে। এখন গান নিয়ে আর কি পরিকল্পনা? ডলি বলেন, আমি পরিকল্পনা করে কিছু করি না। তবে ভালো গান নিয়মিত করে যেতে চাই। সামনেও কিছু কাজ করার কথা রয়েছে। বিশেষ করে আমার ভাই বাদশা বুলবুলের সঙ্গে কিছু কাজ শুরু করবো। তার সঙ্গে একটি দ্বৈত অ্যালবাম করার পরিকল্পনা রয়েছে। ব্রুনাই থেকে ফিরেই হয়তো সেই কাজে হাত দেবো। বর্তমানে অডিও ইন্ডাস্ট্রির অবস্থা কেমন মনে হচ্ছে? ডলি বলেন, মধ্যে অনেক খারাপ একটা সময় পার করেছি আমরা। সে কারণেই আমি নতুন গান ও অ্যালবাম থেকে দূরে সরে ছিলাম। কিন্তু এখন ইন্ডাস্ট্রির অবস্থা বদলাচ্ছে। আমি সন্দিহান ছিলাম বদলায় কি না! কিন্তু অবশেষে পরিবর্তনটা চোখে পড়ছে। এখন সিডির বদলে ডিজিটাল মাধ্যমে শ্রোতারা গান বেশি শুনছেন। যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এভাবেই আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। আমি বেশ আনন্দিত ইন্ডাস্ট্রির এই পরিবর্তনে। আশা করছি সবাই মিলে আগের মতো করে কাজ করতে পারবো। বর্তমান সময়ের তরুণদের কাজ কেমন মনে হচ্ছে? ডলি সায়ন্তনি বলেন, অনেক ভালো হচ্ছে। তরুণরা খুব ভালো করছে। অনেকের কাজ ব্যাক্তিগতভাবে ভালো লাগে আমার। তবে একটি কথা বলতে চাই- গানে যেন একঘেয়েমি ভাব না আসে। গানের অন্যতম বৈশিষ্ট্য হচ্ছে ভ্যারিয়েশন। একই রকমের গান শুনতে শুনতে শ্রোতারা বিরক্ত হন। সেদিকটা লক্ষ্য রেখেই কাজ করতে হবে। তবে তরুণ প্রজন্মকে নিয়ে আমি খুব আশাবাদী। আপনিতো ঈদে একটি টেলিছবিতে প্রথমবারের মতো অভিনয় করেছেন। দর্শক সাড়া কেমন পেলেন? ডলি বলেন, আমি আসলে প্রস্তুত ছিলাম না অভিনয়ের জন্য। শুভ্রদা(শুভ্রদেব) বলেছেন বলেই কাজটি করেছি। আমার সংলাপও কম ছিলো টেলিছবিটিতে, যার জন্য আমার একটু সুবিধে হয়েছিলো(হেসে)। জানি না কেমন করেছি। তবে দর্শক সাড়া বেশ ভালো পেয়েছি। অনেকেই ফোন করে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। সামনেও কি অভিনয়ে পাওয়া যাবে? ডলি সায়ন্তনি বলেন, অভিনয়ে আমাকে আর একদমই পাওয়া যাবে না। কারণ এই একটি টেলিছবি করতে গিয়েই আমার খুব কষ্ট হয়েছে। অভিনয়টা আমার কাছে খুব কঠিন মনে হয়েছে। অভিনয় আর করতে চাই না।
সূত্র : মানবজমিন

 
 
 

0 মতামত

আপনিই প্রথম এখানে মতামত দিতে পারেন.

 
 

আপনার মতামত দিন