গর্বিত টেকনাফ বাহারছড়ার মোঃ শহিদ উল্লাহ

 

বাহারছড়ার শামলাপুর আচারবনিয়া গ্রামে নির্যাতিত রোহিঙ্গা ও স্থানীয়দের মাঝে মানবিক চিকিৎসা সহায়তার জন্য পাঁচ শয্যা বিশিষ্ট একটি হাসপাতাল উদ্ভোধন হয়। মোয়াস হাসপাতালে নিজের শ্রম ও জমি দিতে পেরে নিজেকে গর্বিত মনে করছেন মোঃ শহিদ উল্লাহ (শহিদ)। বিশ্বের অন্যতম মানবিক সহায়তাকারী এনজিও সংস্থা মোয়াস গত ১৪ অক্টোবর শনিবার বেলা ৩টায় ফিতা কেটে এই হাসপাতাল উদ্ভোবন করেন মোয়াসের প্রতিষ্টাতা ও ইতালিয়ান ব্যবসায়ী খ্রীষ্টফার কেট্রামবোনে ও তার স্ত্রী বর্তমান মোয়াসের প্রেসিডেন্ট মিসেস রেজিনা, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মৌলভী আজিজ উদ্দীন, ইউপি সদস্য মোঃ ইউনুচ, স্থানীয় বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষ। মোয়াস লজিষ্টিক কো-অর্ডিনেটর হিসেবে দায়িত্বে আছেন মোঃ শহিদ উল্লাহ (শহিদ)।
মোঃ শহিদ উল্লাহ (শহিদ) বলেন, আজ আমি সত্যি আনন্দিত গরিব অসহায় মানুষের সেবায় নিজেকে উৎসর্গ করতে পেরে।
বাহারছড়ার চেয়ারম্যান মৌলভী আজিজ উদ্দিন বলেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মরহুম শামসুদ্দীন আহম্মদ বাহারছড়ার অহংকার তার প্রতিচ্ছবি শহিদকে পেয়ে আমরাও অনেক গর্বিত এবং আনন্দিত।
মোঃ শহিদ উল্লাহ (শহিদ) আরও বলেন, আমাদের নির্মিত হাসপাতাল একটু ছোট হলেও মুলত এখানে নির্যাতিত রোহিঙ্গা ও স্থানীয় জনগণ খুবই ভাল সুযোগ সুবিধা পাবে এবং এখানে বিভিন্ন পরীক্ষার মাধ্যমে রোগ নির্ণয় করে চিকিৎসকরা আন্তরিক হয়ে সেবা দিতে তাদের চেষ্টা অব্যাহত রাখবে। আর এখানে আলট্রাসোনোগ্রাফি, ইকোগ্রাফি, ইসিজি পরীক্ষা ও সিজার ডেলিভারীসহ বিনা মুল্যে স্বাস্থ্য সম্মত খাদ্য বিতরণ করা হবে। এছাড়াও এখানে আরো একটা আনন্দের বিষয় হল এখানে রোহিঙ্গা ছাড়াও স্থানীয়রা বিনা মুল্যে চিকিৎসা সেবা নিতে পারবে বলে তিনি জানায়।

 
 
 

0 মতামত

আপনিই প্রথম এখানে মতামত দিতে পারেন.

 
 

আপনার মতামত দিন