ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে বলায় তারা মাইক কেড়ে নিল মেয়র নাসিরের

 

53799.jpgeeee

ছাত্রলীগের সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ড নিয়ে সমালোচনা করে বক্তব্য দেয়ায় সিটি মেয়র আ জ ম নাছিরের অনুষ্ঠান পণ্ড করে দিয়েছে ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা। তারা মাইক বন্ধ করে দিয়ে মেয়রকে বক্তব্য রাখতে বাধা দেয়। এ সময় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে হাতাহাতি হয় এবং সভাস্থলের চেয়ার টেবিল ভাংচুর করা হয়। উত্তেজিত নেতাকর্মীরা মেয়রের ব্যক্তিগত সহকারী শিমুলকেও লাঞ্ছিত করে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বহাদ্দারহাট ডায়মন্ড কমিউনিটি সেন্টারে আলোচনা সভার আয়োজন করে স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন। মেয়র তার বক্তব্যের এক পর্যায়ে ছাত্রলীগের কর্মকাণ্ডের সমালোচনা করে বলেন, ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে অ্যাকশান শুরু হয়ে গেছে। অমুক ভাই-তমুক ভাই বলে শ্লোগান দিয়ে পার পাওয়া যাবে না। অপকর্ম করলে কেউ বাঁচতে পারবে না। সুতরাং অমুক ভাই-তমুক ভাই বলে শ্লোগান দিয়ে লাভ নেই।

মেয়রের এমন বক্তব্যে ক্ষেপে গিয়ে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা শ্লোগান দিতে থাকে। এক পর্যায়ে নগর ও স্থানীয় ছাত্রলীগের কিছু নেতা-কর্মী মঞ্চের দিকে এগিয়ে যান এবং মেয়রের মাইক বন্ধ করে দেন। এসময় ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের সাথে মেয়র গ্রুপের কর্মীদের হাতাহাতি হয়। উত্তেজিত নেতা-কর্মীরা মেয়রের ব্যবক্তিগত সহকারীকেও এ সময় লাঞ্ছিত করে। তাদের থামানোর চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে একপর্যায়ে ক্ষুব্ধ মেয়র নিজের গাড়ি নিয়ে সভাস্থল ত্যাগ করে। মেয়র সভাস্থল ত্যাগ করার পর উত্তেজিত নেতা কর্মীরা সভাস্থলের চেয়ার টেবিল ভাংচুর করে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়

 
 
 

0 মতামত

আপনিই প্রথম এখানে মতামত দিতে পারেন.

 
 

আপনার মতামত দিন