টেকনাফের শ্রমিক নেতা নুরুল আলকে বিয়ার ও মদ দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ

 

বার্তা পরিবেশক[]
টেকনাফ উপজেলা মিনি পিকআপ শ্রমিক কল্যাণ সমবায় সমিতি, রেজি:নং -২২৫৮ ও হিউম্যান হলার ম্যাজিক স্পেশাল সার্ভিস মালিক সমিতি রেজি:নং-২৫২৯ এর টেকনাফ শাখার সভাপতি নুরুল আলমকে বিয়ার ও মদ দিয়ে টেকনাফ কোস্টগার্ড সদস্যরা ফাঁসিয়েছে এমন অভিযোগ করেছেন দুই সংগঠনের নেতারা। ২৬ডিসেম্বর বিকেলে সংগঠনে কার্যালয়ে মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবদুল আজিজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।
প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন, সংগঠনের সভাপতি নুরুল আলম মাদক পাচারের সাথে জড়িত নয়। কোস্টগার্ড সদস্যরা প্রতিপক্ষ থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়ে তাকে ফাঁসিয়েছে। আটকের দিনে ঘটনার বিবরণ তুলে ধরে বলেন, লেগুনা একটি ম্যাজিক গাড়ি টেকনাফ বাস ষ্টেশনে পার্কিং করা অবস্থায় ছিল। ঐ গাড়িতে মাদক আছে মর্মে গাড়ি তল্লাশীর জন্য কোস্টগার্ড সদস্যরা ক্যাম্পে নিয়ে যেতে চেয়েছিল। কিন্তু এ গাড়ির ড্রাইভার তাতে রাজি হয়নি এবং কোস্টগার্ড সদস্যদেরকে বলেন মাদকসহ যে কোন পণ্য থাকুক না কেন, গাড়িটি যে অবস্থায় আছে সে স্থানে তল্লাশীর অনুরোধ করেন। তাতে রাজি হয়নি কোস্টগার্ড সদস্যরা। এসময় তাদের মধ্যে তর্কবির্তক হয়। পরবর্তীতে ঐ গাড়ির মালিক টেকনাফ উপজেলা মিনি পিকআপ শ্রমিক কল্যাণ সমবায় সমিতি ও হিউম্যান হলার ম্যাজিক স্পেশাল সার্ভিস এর টেকনাফ শাখার সভাপতি নুরুল আলমকে ফোন করে বিষয়টি জানিয়ে ঘটনাস্থলে আসতে বলেন। নুরুল আলম ঘটনাস্থলে হাজির হয়ে তিনিও একই কথা বলেন। একপর্যায়ে সংগঠনের সভাপতি নুরুল আলম রাজি হয়ে কোস্টগার্ড ক্যাম্পে তল্লাশীর জন্য নিয়ে যায়। এখানে কোন প্রকার মাদক না পাওয়ায় তর্কবিতকের জন্য সংগঠনের সভাপতি নুরুল আলমকে মারধর করেন এবং মারধরের প্রতিবাদ করায় তাকে এবং চালক নুর মোহাম্মদকে তাদের ক্যাম্পে থাকা বিয়ার ও মদ দিয়ে আটক দেখিয়ে থানায় সোর্পদ করে। এব্যাপারে সংগঠনের নেতারা কোস্টগার্ডের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ হস্তক্ষেপসহ তদন্তকারী কর্মকর্তার সুদৃষ্টি কামনা করেছেন। না হয় পরবর্তীতে বৃহৎ কর্মসূচী ঘোষনার কথাও জানান নেতারা।
টেকনাফ কোস্টগার্ড ষ্টেশনের কমান্ডার লেঃ জাফর ঈমাম সজিব কাছে এ রির্পোট লেখার সময় একাধিক ফোন করা হলেও মোবাইল ফোনে সংযোগ পাওয়া যায়নি। তাই তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।
প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন, সাধারণ সম্পাদক মো:আলমগীর, সদস্য মো: ইয়াছিন, খালেদ নুর আমির, সৈয়দ আমিন, মো: ইসমাইল, নুর হাকিম, মো: ইলিয়াছ, ওয়াছ করিম, মোবারক, খালেক, শমসু, পরিতুস, ফরিদ, সাদ্দাম, আবদুল আমিন, খালেদ, শওকত, ইমাম হোসেন, ইউনুছসহ আরো অনেকে।

 
 
 

0 মতামত

আপনিই প্রথম এখানে মতামত দিতে পারেন.

 
 

আপনার মতামত দিন