টেকনাফে মেম্বারের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা

 

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ
চাঁদাবাজির অভিযোগ এনে এক মেম্বার ও মেম্বারের সহোদর ভাইসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের কাঞ্জরপাড়া এলাকায় ঘটেছে এ ঘটনা। এনিয়ে এলাকায় বিরুপ প্রতিক্রিয়াসহ উত্তেজনা বিরাজ করছে। অপরদিকে মেম্বার ও মেম্বারের সহোদর ভাইসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা মিথ্যা ও সাজানো দাবি করে বিভিন্ন সংগঠন নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানিয়েছেন।
জানা যায়, ৫ ডিসেম্বর কক্সবাজার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-৩ টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের নয়াপাড়ার মৃত হাজী আবুল খায়েরের পুত্র হাজী মনু মিয়া বাদি হয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগে একটি মামলা করেন। এতে উক্ত এলাকার আওয়ামীলীগ নেতা ও আবদুল গফফার মেম্বারের ভাই দেলোয়ার হোসেন প্রকাশ দিলু, মোঃ জালাল, আবদুল গফফার, মোঃ সিরাজ, নুরুল আজিম, আবুল কালাম প্রকাশ কালু, মিজানুর রহমান এবং অজ্ঞাতনামা আরও ৩-৪ জনকে আসামী করা হয়েছে। তাঁদের দাবি হচ্ছে বিষয়টি সম্পুর্ণ মিথ্যা। জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরেই চাঁদাবাজির অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, দেলোয়ার হোসেন প্রকাশ দিলু তাঁর ছোট ভাই নব-নির্বাচিত মেম্বার আবদুল গফফার এলাকার বিভিন্ন উন্নয়ন শিক্ষা ও সেবামুলক প্রতিষ্টান এবং কর্মকান্ডের সাথে জড়িত। সফল ব্যবসায়ী ও চিংড়ি চাষী দেলোয়ার হোসেন প্রকাশ দিলু কাঞ্জরপাড়া হাইস্কুল ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সভাপতি, মধ্য হ্নীলা বনবিটের আওতাধীন সামাজিক বনায়ন কমিটির সভাপতি, কাঞ্জরপাড়া ২নং সিআইজি ও হোয়াইক্যং ইউনিয়ন সিআইজি গ্রুপের সভাপতি, উপকুলীয় সবুজ বেষ্টনী প্রকল্পের সভাপতি। তিনি ও তাঁর সহোদর ছোট ভাই নব-নির্বাচিত মেম্বারের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করায় মধ্য হ্নীলা বনবিটের আওতাধীন সামাজিক বনায়ন কমিটির সদস্যবৃন্দ, কাঞ্জরপাড়া ২নং সিআইজি ও হোয়াইক্যং ইউনিয়ন সিআইজি গ্রুপের নেতৃবৃন্দ এবং উপকুলীয় সবুজ বেষ্টনী প্রকল্পের সদস্যবৃন্দ তীব্র নিন্দা প্রকাশ করে তা সুষ্ট তদন্তের মাধ্যমে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করার দাবি করেছেন। ##

 
 
 

0 মতামত

আপনিই প্রথম এখানে মতামত দিতে পারেন.

 
 

আপনার মতামত দিন