ধর্ষণ করতে গিয়ে লিঙ্গ হারালো

 

vvv3-300x184uuuএক মহিলাকে ধর্ষণ করতে গিয়ে লিঙ্গ হারালো মঈন উদ্দিন (৩৭) নামে এক বখাটে। ঘটনার পর লিঙ্গ কর্তনকারী ওই মহিলার স্বামী বখাটের বিরুদ্ধে শাহপরান থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা করেছেন। মঈন উদ্দিন শহরতলীর মুক্তিরচক এলাকার সোনাপুর গ্রামের ওয়ারিছ আলীর ছেলে।মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০১৩ সাল থেকে বখাটে মঈন উদ্দিন পার্শ্ববর্তী বাড়ির এক গৃহবধূকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। তার আচরণে অতিষ্ট হয়ে ওই গৃহবধূর স্বামী শাহপরান থানায় একটি অভিযোগ করেন। এরপর মঈন এমন কাজ থেকে বিরত থাকবে বলে স্থানীয় মুরব্বিদের আশ্বাস দেয় এবং শাহপরান থানা থেকে মুচলেকা দিয়ে ছাড়া পায়।
সোমবার রাতে ওই গৃহবধূর স্বামী বাড়িতে না থাকার সুযোগে সে ঘরে প্রবেশ করে। এক পর্যায়ে জোরপূর্বক ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করার চেষ্টা করলে গৃহবধূ ব্লেড দিয়ে মঈন উদ্দিনের পুরুষাঙ্গ কেটে নেয়। এসময় মঈন চিৎকার দিয়ে লিঙ্গ হাতে নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে আশপাশের লোকজন উপস্থিত হলে পুরো ঘটনার খুলে বলেন ওই গৃহবধূ। এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও শাহপরান থানার এসআই জসিম উদ্দিন বলেন, বখাটে মঈন উদ্দিন এলাকা ছেড়ে পালিয়ে গেছে। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

 
 
 

0 মতামত

আপনিই প্রথম এখানে মতামত দিতে পারেন.

 
 

আপনার মতামত দিন