নিউ ইয়র্কে বিশ্বের সকল বাঙালির উদ্দেশে ভাষণ দেবেন শেখ হাসিনা

 

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে বিশাল আকৃতির নৌকার আদলে তৈরি নাগরিক সংবর্ধনার মঞ্চে ১৬ কোটি মানুষের জন্য ভাষন দেবেন ‘মানবতার মা’ (মাদার অব হিউম্যানিটি) খ্যাত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাঁর এ ভাষণমঞ্চ প্রস্তুতির কাজও চলছে। এটাই হবে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগ প্রধানমন্ত্রী দেওয়া এ বছরের সেরা চমক।

স্থানীয় সময় শনিবার সন্ধ্যায় নিউ ইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের নেতারা।

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান তাঁর বক্তব্যে বলেন, প্রধানমন্ত্রী ও মানবতার মা শেখ হাসিনা যুক্তরাষ্ট্রে আগমনকে কেন্দ্র করে স্থানীয় বিএনপি বিমানবন্দর ও জাতিসংঘের সামনে নানা ধরনের কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। এসব স্থানে কোন প্রকার বিচ্ছৃখংলা দেখা দিয়ে এ দেশের আইন অনুযায়ী যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ তা প্রতিহত করবে। এজন্য আওয়ামীলীগের সকল নেতা-কর্মিদেরকে সজাগ থাকার জন্য তিনি আহবান জানান।

তিনি বলেন, বিশ্বের সকল রাষ্ট্রপ্রধানগণ এবার বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মিয়ানমারের রোহিঙ্গা বিষয়ক বক্তব্য শোনার জন্য অপেক্ষায় থাকবেন। কারন এবারে জাতিসংঘ অধিবেশনে বিশ্বনেতাদের সামনে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সেনাবাহিনীর নির্যাতনের মুখে লাখ লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়ার বিষয়ে বক্তব্যে দেবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মিয়ানমারের রোহিঙ্গা সংকটের ‘মূল কারণগুলো’ দেখিয়ে তা নিরসনে বাংলাদেশের প্রস্তাব জাতিসংঘে বিশ্বনেতাদের সামনে তুলে ধরবেন।

তিনি উল্লেখ করে বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী ফ্লাইটটি গতকাল স্থানীয় সময় বিকেল ৪টা ৪০ মিনিটে আবুধাবি বিমানবন্দরে অবতরণ করেছেন।
নিউ ইয়র্কের স্থানীয় সময় বিকেল ৪টা ২০ মিনিটে তিনি নিউ ইয়র্কের জন এফ কেনেডি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছবেন। সফরকালে প্রধানমন্ত্রী নিউ ইয়র্কের গ্র্যান্ড হায়াত হোটেলে অবস্থান করবেন।
আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর ম্যানহাটনের টাইমস স্কোয়ার এলাকায় ম্যারিয়ট মারকুইসের বলরুমে অনুষ্ঠিত হবে ‘মানবতার মা’ খ্যাত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নাগরিক সংবর্ধনা। এবারে এ সভায় সকল সাংবাদিকদের জন্য সুষ্ঠভাবে বসার ব্যবস্থা করবেন বলেও উল্লেখ করেন ড. সিদ্দিকুর রহমান। তিনি বলেন, কোনও প্রয়োজনে দলের যে নেতাকর্মীদের ফোন করলে তাঁরা সে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করবেন বলে জানান তিনি।
সংবাদ সম্মেলনে স্থানীয় যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগ ও সকল অঙ্গসংঠনের নেতা-কর্মি এবং প্রবাসের প্রিন্ট, ইলেক্ট্রনিক ও অনলাইন নিউজ পোর্টালের অধিকাংশ সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 
 
 

0 মতামত

আপনিই প্রথম এখানে মতামত দিতে পারেন.

 
 

আপনার মতামত দিন