মাগুরায় ট্রাকে পেট্রোল বোমায় দগ্ধ ৯

 

ma

মাগুরা সদর উপজেলার মঘীর ঢাল এলাকায় শনিবার রাতের ওই ঘটনায় দগ্ধ আরো পাঁচ শ্রমিকের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের আবাসিক চিকিৎসক পার্থ শংকর পাল জানান, দগ্ধ নয়জনকে রাত আড়াইটার দিকে তাদের হাসপাতালে আনা হয়।

এ সময় রওশন আলী বিশ্বাসকে (৩৫) মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে। তার শরীরের ৯০ শতাংশের মতো পুড়ে গিয়েছিল।

বাকি আটজন বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন। তাদের মধ্যে ইয়াদুলের শরীরের ৮৮ শতাংশ, মতিন বিশ্বাসের ৫৫ শতাংশ, শাকিল আহমেদের ৬৫ শতাংশ, ইমরান হোসেনের ৫০ শতাংশ ও ইলিয়াস বিশ্বাসের শরীরের ৫০ শতাংশ পুড়ে গেছে।

এই পাঁচজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানান চিকিৎসক পার্থ।

এদের বাইরে দগ্ধ নাজমুল হোসেন, ফারুক ও আরব আলী চিকিৎসা নিচ্ছেন। তাদের অবস্থাও খুব একটা ভালো নয় বলে পার্থ জানিয়েছেন।

বিএনপি-জামায়াত জোটের অবরোধের মধ্যে শনিবার রাত সোয়া ৮টার দিকে এই পেট্রোল বোমা হামলার শিকার হন শ্রমিকরা।

মাগুরার সহকারী পুলিশ সুপার সুদর্শন কুমার রায় জানান, মাগুরার শালিখার আড়পাড়া এলাকায় বালু নামিয়ে শ্রমিকরা ট্রাকে করে বাড়ি ফিরছিলেন। মঘির ঢাল এলাকায় পৌঁছালে দুর্বৃত্তরা পেট্রোল বোমা ছুড়ে পালিয়ে যায়।

স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে মাগুরা সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাদের ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া গত ৫ জানুয়ারি অবরোধের ডাক দেওয়ার পর রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে গাড়িতে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ, অগ্নিসংযোগ ও হাতবোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটছে।

নাশকতার এসব ঘটনায় ১২৬ জনের মতো প্রাণ হারিয়েছেন, যাদের অর্ধেকের বেশি আগুনে পুড়ে মারা গেছেন।

 
 
 

0 মতামত

আপনিই প্রথম এখানে মতামত দিতে পারেন.

 
 

আপনার মতামত দিন