সেন্টমার্টিনদ্বীপে পরিবেশ অধিদপ্তরের ভবন আছে, সাইনবোর্ড আছে, কার্যক্রম নেই

 

নিজস্ব প্রতিবেদক [] সেন্টমার্টিনদ্বীপে মরা কচ্ছপ ভেসে আসছে। সাগর তলদেশের প্রাকৃতিক ঝাড়ুদার খ্যাত কচ্ছপ কেন মারা যাচ্ছে তার কারণ জানা সম্ভব হয়নি। এর আগে আরও বহু সংখ্যক মরা কচ্ছপ সেন্টমার্টিনদ্বীপের উপকুলে ভেসে এসেছিল।
৬ জানুয়ারী শনিবার সকালে একটি বিরল প্রজাতির সামুদ্রিক মরা কচ্ছপ সেন্টমার্টিনদ্বীপের চরে ভেসে আসে। সেন্টমার্টিনদ্বীপের জেটিঘাট সংলগ্ন সামান্য দক্ষিণে সমুদ্র সৈকতে ভেসে আসা বিরল প্রজাতির কচ্ছপটি দেখতে খুবই সুন্দর। সুন্দর গড়নের কচ্ছপটি দেখতে হুমড়ি খেয়ে দৌঁড়েন পর্যটকরা। মরা কচ্ছপটি ঘিরে ধরে কুকুরের দল খেতে থাকে।
স্থানীয় মেম্বার হাবিবুল্লাহ প্রকাশ হাবিব খান দুঃখ করে বলেন ‘এভাবে প্রাকৃতিক সম্পদ কচ্ছপ মারা যাওয়া মোটেও কাম্য নয়। কচ্ছপের নামে দ্বীপে অনেক ডিজিটাল সাইনবোর্ড দেখা গেলেও জনবল দেখা যায়না’।
সেন্টমার্টিনদ্বীপ ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুর আহমদ ৬ জানুয়ারী শনিবার সকালে একটি বিরল প্রজাতির সামুদ্রিক মরা কচ্ছপ সেন্টমার্টিনদ্বীপের চরে ভেসে আসার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন ‘মরা কচ্ছপটি পুতে ফেলতে দ্বীপের বীচ কর্মীদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
বোট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আলমের সহযোগীতায় মরা কচ্ছপটি গর্ত করে পুঁেত ফেলা হয়েছে’। তিনি আরও বলেন ‘সেন্টমার্টিনদ্বীপে পরিবেশ অধিদপ্তরের বড় বড় ভবন রয়েছে। কচ্ছপের নামে দ্বীপে অনেক ডিজিটাল সাইনবোর্ড আছে। কিন্তু তাদের পরিবেশ বিষয়ে কোন তৎপরতা দেখা যায়না’। ##

 
 
 

0 মতামত

আপনিই প্রথম এখানে মতামত দিতে পারেন.

 
 

আপনার মতামত দিন