৪০ পেরিয়ে মৌসুমী সানী

 

155336_115প্রয়াত পরিচালক দীলিপ সোম পরিচালিত ‘দোলা’ ছবিতে প্রথম জুটিবদ্ধ হয়ে অভিনয় করেন চিত্রনায়ক ওমর সানী ও চিত্রনায়িকা মৌসুমী। ১৯৯৩ সালের ২ নভেম্বর রায়হান মুজিব পরিচালিত ‘আত্ম অহঙ্কার’ ছবির শুটিংয়ের সময় সেই দিন ওমর সানী তার নিজের একটি স্বর্ণের চেইন উপহার দিয়েছিলেন মৌসুমীর জন্মদিনের আগের দিন। তখন সিলেটের জৈন্তাপুরে ‘আত্ম অহঙ্কার’ ছবির শুটিং চলছিল। সেই থেকে ওমর সানী ও মৌসুমীর প্রেম-ভালোবাসার শুরু। শুরু একসাথে জুটিবদ্ধ হয়ে সিনেমায় অভিনয় করা। বিগত ২৩ বছরে মৌসুমী ও ওমর সানী ৪০টি ছবিতে একসাথে অভিনয় করেছেন। এবার তারা কাজ করছেন তাদের অভিনয় জীবনের ৪১তম সিনেমায়। বদিউল আলম খোকন পরিচালিত কাশেম আলী দুলালের গল্পে তারা দু’জন অভিনয় করছেন ‘হারজিৎ’ সিনেমায়। গত ২২ সেপ্টেম্বর থেকে রাজধানীর উত্তরায় স্বপ্নিল-থ্রি শুটিং হাউজে সিনেমাটির শুটিং শুরু হয়েছে। এতে ওমর সানী ও মৌসুমী স্বামী স্ত্রীর ভূমিকাতেই অভিনয় করছেন। এর আগে বদিউল আলম খোকনের নির্দেশনায় ওমর সানী-মৌসুমী দু’টি আলাদা সিনেমায় অভিনয় করলেও এবারই প্রথম তারা দু’জন খোকনের নির্দেশনায় একই সিনেমায় অভিনয় করছেন।

ওমর সানী বলেন, ‘এর আগে বদিউল আলম খোকনের রাজা বাবু সিনেমায় অভিনয় করেছিলাম। বেশ ভালো একটি সিনেমা ছিল এটি। আমি অনেক সাড়া পেয়েছিলাম। দিতি আপার সাথে ওটা ছিল আমার শেষ সিনেমা। মৌসুমীর সাথে হারজিৎ সিনেমায় কাজ করছি। আমি ও মৌসুমী যথারীতি স্বামী-স্ত্রীর ভূমিকায়। বেশ ভালো একটি গল্পের সিনেমা এটি। খোকন যথেষ্ট আন্তরিকতা নিয়ে কাজ করছেন। আমি খুব আশাবাদী তার এ সিনেমাটি নিয়ে।’

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নায়িকা মৌসুমী বলেন, ‘এর আগে খোকন ভাইয়ের নির্দেশনায় মান্না ভাইয়ের সাথে রুস্তম সিনেমায় অভিনয় করেছিলাম। এরপর আর একসাথে কাজ করা হয়ে ওঠেনি। বহু বছর পর তার নির্দেশনায় কাজ করছি। ভালো লাগছে এ কারণেই যে খুব গুছানো একটি ইউনিটে মনেরমতো কাজ করতে পারছি। সাথে যেহেতু সানী আছে তাই ক্ষণে ক্ষণে তার জন্য চিন্তা থেকে মুক্ত আছি। চোখের সামনেই আছি দু’জন একে অন্যের। হারজিৎ-এর গল্পটা খুব ভালো। দেখা যায় যে এ সময়ে এসে আমি গল্প ও চরিত্র দুটোই বেশ গুরুত্ব দেই। মন থেকে সায় না দিলে কাজ করি না।’ ওমর সানী-মৌসুমী জুটির প্রথম চলচ্চিত্রে ছিল ‘দোলা’। এটি ১৯৯৪ সালে মুক্তি পায়।

এরপর একই জুটি অভিনীত উল্লেখযোগ্য ছবিগুলো হচ্ছে- আত্ম অহঙ্কার, প্রথম প্রেম, মুক্তির সংগ্রাম, হারানো প্রেম, গরিবের রানী, প্রিয় তুমি, সুখের স্বর্গ, মিথ্যা অহঙ্কার, ঘাত প্রতিঘাত, লজ্জা, কথা দাও, স্নেহের বাঁধন প্রভৃতি। তাদের মুক্তিপ্রাপ্ত সর্বশেষ ছবি হচ্ছে শাহীন সুমনের ‘সাহেব নামে গোলাম’। এটি ২০০৯ সালে মুক্তি পায়। এর সাত বছর পর তারা জুটিবদ্ধ হয়ে অভিনয় করেছেন প্রয়াত বেলাল আহমেদের নির্দেশনায় ‘ভালোবাসবোই তো’ ছবিতে। এটি সেন্সর সনদপত্র লাভ করেছে।
সূত্র : নয়াদিগন্ত

 
 
 

0 মতামত

আপনিই প্রথম এখানে মতামত দিতে পারেন.

 
 

আপনার মতামত দিন