ইউপি ভোট স্থগিতের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে বৈঠকে বসেছে ইসি

ইউপি ভোট স্থগিতের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে বৈঠকে বসেছে ইসি

 

আগামী ১১ এপ্রিল অনুষ্ঠেয় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন স্থগিতের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে বৈঠকে বসেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদার সভাপতিত্বে আগারগাঁও নির্বাচন ভবনে কমিশনের ৭৮তম সভা শুরু হয়। সভায় ইউপি নির্বাচনের বিষয়টি এজেন্ডাভুক্ত না হলেও বিবিধ এজেন্ডা হিসেবে এ ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তটি এ সভা থেকেই আসবে বলে কমিশন সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে।

আজকের বৈঠকে মূলত তিনটি এজেন্ডা রয়েছে, এগুলো হলো—শূন্য হওয়া সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচন অনুষ্ঠান; নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল কর্তৃক নিবন্ধনের শর্তাদি প্রতিপালন সংক্রান্ত ও দ্বৈত ভোটার হওয়ার কারণে মামলা দায়ের এবং দ্বৈত ভোটার রোধকল্পে সুপারিশমালা প্রণয়ন সংক্রান্ত।

কমিশন সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, আজকের বৈঠকটির নোটিশ আগেই প্রস্তুত হওয়ার কারণে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের বিষয়টি এজেন্ডাভুক্ত হয়নি। তবে ২৯ মার্চ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ায় সরকার ১৮ দফা নির্দেশনা জারির পরপরই কমিশন এক অনির্ধারিত বৈঠকে বসে। বৈঠক সূত্র জানায়, দেশে করোনা সংক্রমণ উদ্বেগজনকভাবে বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষিতে ওই বৈঠকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন স্থগিতের বিষয়ে আলোচনা হয়।

এ বিষয়ে ওই সময় ইসির অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ জানিয়েছিলেন, ৩১ মার্চের কয়েকটি নির্বাচন রয়েছে; এ নির্বাচনগুলো হবে। তবে ১১ এপ্রিল ইউপি, পৌর ও সংসদের উপনির্বাচন রয়েছে। এ বিষয়ে অনির্ধারিত বৈঠকে আলোচনা হলেও ১ এপ্রিল কমিশন সভার পর সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

প্রসঙ্গত, আগামী ১১ এপ্রিল অনুষ্ঠেয় দেশের ৩৭১ ইউনিয়ন পরিষদ ও ষষ্ঠধাপে ১১টি পৌরসভার সাধারণ নির্বাচন এবং লক্ষ্মীপুর-২ আসনের উপনির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা রয়েছে। বর্তমানে এসব নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণা চলছে। এরই মধ্যে ভোট স্থগিতের খবরে প্রার্থী ভোটার ও জনমনে ব্যাপক আগ্রহ তৈরি হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ