ইয়াবার চালান নিয়ে সহোদরসহ আটক ৫, নোহা ও প্রাইভেটকার জব্ধ


এম.মনছুর আলম, চকরিয়া:
চকরিয়ায় চিরিংগা হাইওয়ে পুলিশের অভিযানে চট্রগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের উপজেলার বানিয়ারছড়াস্থ আমতলী এলাকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পৃথক অভিযানে দুইটি প্রাইভেট গাড়ী মাইক্রোবাস(নোহা) ও কারগাড়ী থেকে তল্লাসি করে ৬হাজার ৩০০ ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়েছে।অভিযানে পুলিশ।

এ সময় সহোদরসহ ৫ জনকে আটক করা হয়েছে। ইয়াবা পাচার কাজে ব্যবহ্নত গাড়ী দুটি জব্ধ করেছে হাইওয়ে পুলিশ।

শনিবার(১০ফেব্রুয়ারী)সকাল ৭টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত হাইওয়ে পুলিশ অভিযানের মাধ্যমে ধৃত এ ইয়াবা পাচারকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়।এ নিয়ে চকরিয়া থানায় পাচারকারীদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে সংশ্লিষ্ট ধারায় শনিবার রাতে ২টি মামলা রুজু করা হয়েছে।

হাইওয়ে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, প্রতিদিনের মতো চিরিংগা হাইওয়ে পুলিশের একটি টীম শনিবার সকাল থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত চট্রগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে উপজেলার বানিয়ারছড়া আমতলী নামক এলাকায় দায়িত্ব পালন করছিল।দায়িত্ব পালনকালে সকালের দিকে কক্সবাজার থেকে চট্রগ্রামগামী চট্রমেট্রো-চ-১১-৪৭৫৯ মাইক্রোবাস (নোহা)গাড়ীযোগে ইয়াবা চালানের গোপন সংবাদ পেয়ে গাড়িটি আমতলী চেকপোস্টের সামনে আসলে হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ীর ইনচার্জ সার্জেন নুরে আলম নেতৃত্বে এস আই নাছির উদ্দিন ও এ এস আই খোরশেদসহ সঙ্গীয় পুলিশ ফোর্স নিয়ে গাড়ীটি সিগন্যাল দিয়ে থামিয়ে তল্লাসী করে ৪হাজার৫শত পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।গাড়ীতে থাকা ইয়াবা পাচারে জড়িত তিন ব্যাক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।গ্রেপ্তারকৃত হলেন,ভোলা জেলার চরফ্যাশন উপজেলার অমরপুর এলাকার নাছির আলমের পুত্র আবদু রহমান(২৭), কক্সবাজার জেলার টেকনাফ উপজেলার শামলাপুর এলাকার আব্বাস উদ্দিনের পুত্র জাহাঙ্গীর আলম(২১) ও রামু উপজেলার দরিয়ারদীঘি মন্ডলপাড়া এলাকার মীর আহমদের পুত্র আবদুর রজ্জাক(২৬)।একই দিন সকাল১০টার দিকে হাইওয়ে পুলিশের সার্জেন নুরে আলমের নেতৃত্বে কক্সবাজার থেকে চট্রগ্রামগামী চট্রমেট্রো-খ-১১-০৮০১৫৯ প্রাইভেট কারগাড়ী যোগে ইয়াবা চালান নিয়ে যাওয়ার সংবাদ পেয়ে উল্লেখিত গাড়ী তল্লাসী করে ১হাজার ৮শত পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে।এসময় মাসুদুর রহমান(৩৫)ও মো:মোস্তফিজুর রহমান পাবেল (২৮) নামের দুই ইয়াবা পাচারকারী গ্রেপ্তার করা হয়।গ্রেপ্তারকৃত দুইজনই আপন ভাই।তারা নরসিংদী জেলার মনোহরদী উপজেলার বাগাদী এলাকার মফিজুর রহমানের পুত্র।পুলিশ ইয়াবা পাচারে তাদের ব্যবহ্নত গাড়ীটি জব্ধ করেছেন। পরে হাইওয়ে পুলিশ ধৃত আসামীদের শনিবার রাতে চকরিয়া থানায় সোপর্দ করেছে।

এ ব্যাপারে কক্সবাজার মহাসড়কের বানিয়ারছড়াস্থ চিরিংগা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সার্জেন্ট নুরে আলমের কাছে জানতে চাইলে তিনি এ প্রতিবেদককে বলেন,হাইওয়ে পুলিশের একটি টীম নিয়ে সঙ্গীয় ফোর্সসহ চট্রগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের বানিয়ারছড়া সংলগ্ন আমতলী এলাকায় পৃথক অভিযানে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ২টি গাড়ী তল্লাশী করে ৬হাজার৩শত পিস ইয়াবা ট্যালেট উদ্ধার করা হয়েছে।এসময় ৫ইয়াবা পাচারকারীকে গ্রেপ্তার করে ইয়াবা পাচারে ব্যবহ্নত মাইক্রোবাস(নোহা) ও প্রাইভেট কারগাড়ী জব্ধ করা হয়।ধৃত পাচারকারীর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে সংশ্লিষ্ট ধারায় চকরিয়া থানায় হাইওয়ে পুলিশের এস আই নাছির উদ্দিন ও এ এস আই খোরশেদ আলম বাদী হয়ে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেছে। এবং ধৃত ব্যাক্তিদের থানায় সোপর্দ করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।