এমপি বদির গাড়িতে হামলার ঘটনায় মামলা

টেকনাফ প্রতিনিধি
টেকনাফের হোয়াইক্যংয়ে এমপি বদির গাড়ী লক্ষ্য করে গুলি বর্ষনের ঘটনায় উপজেলা বিএনপি সাধারন সম্পাদক মো. আব্দুল্লাহ সহ ৩ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। শনিবার (১ ডিসেম্বর) বদির গাড়ী চালক খোরশেদ আলম বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। এতে আব্দুল্লাহ সহ ৩জন নামীয় ও ৪-৫ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে থানায় মামলা (নং-৪)টি দায়ের করা হয়।
টেকনাফ থানার পরিদর্শক তদন্ত এবিএম এস দোহা সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
মামলার আসামীরা হচ্ছেন হোয়াইক্যং ইউনিয়নের কাঞ্জরপাড়া এলাকার মো. সালাউদ্দিন, রুহুল আমিন ও
মো. আব্দুল্লাহ। সালাউদ্দিন আব্দুল্লাহর শ্যালক।
উল্লেখ্য শুক্রবার রাত সোয়া ৮টার দিকে হোয়াইক্যং ইউনিয়নের কানজরপাড়া এলাকায় টেকনাফ-কক্সবাজার সড়কে এমপি বদির গাড়ীতে গুলিবর্ষনের ঘটনা ঘটে। এসময় এমপি বদি গাড়ীতেই ছিলেন। গুলি বদির গাড়ীর পেছনের কাঁচ ভেদ করে চলে গেলেও এমপি বদিসহ গাড়ীতে থাকা যাত্রীরা অক্ষত ছিলেন।
ঘটনার পরপর এমপি বদি সাংবাদিকদের জানান, হঠাৎ করে রাস্তার পাশের ঝুপঝাড় থেকে দুই ব্যক্তি গাড়ী লক্ষ্য করে গুলি করে পালিয়ে যায়। গুলিবর্ষনকারীদের তিনি চিনতে পেরেছেন বলেও জানান। এদের একজন মো. আব্দুল্লাহ ও অপরজন তার শ্যালক হতে পারে বলেও জানান তিনি।
এসময় এমপি বদির গাড়ী বহরে থাকা টেকনাফ পৌর আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক মো. আলম বাহাদুর জানান, শুক্রবার রাতে উখিয়া হতে সাবেক জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি একে আহমদ হোসেনের জিয়াফত অনুষ্ঠান শেষে দুই তিনটা গাড়ী বহর নিয়ে টেকনাফ ফেরার পথে হোয়াইক্যং এলাকায় পৌঁছলে গুলিবর্ষনের এ ঘটনা ঘটে। এসময় গাড়ী বহরের সামনে থাকা এমপি বদির ঢাকা মেট্রো-ঘ ১৩-৬৮৮০ নাম্বারের নিজস্ব টয়োটা ভি-৮ জীপ গাড়ীতে করে উখিয়া হতে টেকনাফে আসার পথে এ ঘটনা ঘটে। পেছনের গাড়ীতে এমপি বদির স্ত্রী আওয়ামীলীগ মনোনীত এমপি প্রার্থী শাহীন আক্তারও ছিলেন বলে জানান তিনি। এছাড়া এমপি বদির গাড়ীতে টেকনাফ উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আহমদ সহ ৩জন ছিলেন। খবর পেয়ে হোয়াইক্যং ফাঁড়ী ও টেকনাফ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যান।
পরে পুলিশী নিরাপত্তায় এমপি বদি নিরাপদে টেকনাফে ও তার স্ত্রী শাহিন আক্তার উখিয়া পৌঁেছন।
এ ঘটনায় তাৎক্ষনিক উখিয়া, পালংখালী সহ কয়েক জায়গায় প্রতিবাদ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।
এঘটনায় শনিবার বদির গাড়ী চালক খোরশেদ আলম বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-০৪। এতে এমপি বদিকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে টেকনাফ উপজেলা বিএনপি সাধারন সম্পাদক মো. আব্দুল্লাহ, তার শ্যালক সালাউদ্দিন, রুহুল আমিন নামে ৩ জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।
টেকনাফ উপজেলা বিএনপি সাধারন সম্পাদক মো. আব্দুল্লাহ জানান, তিনি কোন ভাবেই এই হামলার সাথে জড়িত নন। তিনি উল্টো প্রশ্ন রাখেন তিনি কেন এমপি বদিকে হামলা করবেন। তিনিও ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।