টেকনাফে আইনশৃঙ্খলার উন্নতি ও মাদকবিরোধী অভিযান বিষয়ক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

নুরুল হোসাইন,টেকনাফ প্রদীপ কুমার দাশ টেকনাফ মডেল থানায় ওসি হিসেবে যোগদান করার পর থেকে টেকনাফের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ব্যাপক উন্নতি হয়েছে এবং মাদকবিরোধী অভিযানে সফলতার মুখ দেখছে। সেই সফলতার অংশ হিসেবে গতকাল রাতে টেকনাফ মডেল থানার হলরুমে থানার (ওসি তদন্ত) এবিএমএস দোহার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন- টেকনাফ উপজেলা আ’লীগের সভাপতি অধ্যাপক মোঃ আলী, পৌরসভার মেয়র হাজী মোঃ ইসলাম, উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সভাপতি নুরুল হুদা, সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম, উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল বশর, পৌর আ’লীগের সভাপতি জাবেদ ইকবাল চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক ও পৌর কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সভাপতি মোঃ আলম বাহাদুর, হ্নীলা ইউনিয়নের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান রাশেদ মো: আলী, আল-জামিয়া আল ইসলামিয়া বড় মাদ্রাসার পরিচালক মৌলানা মুফতি কেফায়েত উল্লাহ শফিক, শাহপরীরদ্বীপ কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সভাপতি সোনা আলী, টেকনাফ সাংবাদিক ইউনিটির সভাপতি সাইফুল ইসলাম সাইফী, সাধারণ সম্পাদক ও পৌর কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সাধারণ সম্পাদক নুরুল হোসাইন, সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি আশেক উল্লাহ ফারুকী। নয়াবাজার উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি অধ্যাপক গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, হোয়াইক্যয়ের কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সভাপতি হারুন সিকদার প্রমূখ। মতবিনিময় সভায় বক্তারা টেকনাফবাসীর প্রাণপ্রিয় ওসি প্রদীপ কুমার দাশের বিরুদ্ধে সম্প্রতি ইয়াবা ব্যবসায়ীদের ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকায় সংবাদ মিথ্যা সংবাদ প্রকাশিত হওয়ায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন। পাশাপাশি তিনি যোগদান করার পর থেকে টেকনাফবাসী দেয়া ওয়াদা রক্ষা করে নিজের সততা বজায় রেখে ইয়াবা, সন্ত্রাস দমন ও মাদক ব্যবসায়ীদের এলাকা ছাড়া করতে সক্ষম হয়েছে এবং ১০২ জন ইয়াবা ব্যবসায়ী আত্মসমর্পণ করতে বাধ্য হয়েছে। বক্তারা আরো বলেন, ওসি প্রদীপের কারণে মিয়ানমার থেকে ইয়াবা আসা অনেকটা কমিয়ে এসেছে, ব্যবসায়ীরাও এলাকা ছেড়েছে। এছাড়া শক্ত হাতে মোকাবেলা করছেন রোহিঙ্গা পরিস্থিতিসহ সমস্ত অপরাধ। যতদিন টেকনাফে প্রদীপের আলো জ্বলবে, ততদিন মানুষ শান্তি থাকবে। যেদিন প্রদীপের আলো নিভে যাবে, সে দিন টেকনাফে শান্তি থাকবে না। ওসি প্রদীপকে আরো কিছুদিনের মধ্যে টেকনাফে রেখে মাদক নিমূলে আরো জোরালো ভূমিকা রাখতে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন বক্তারা। ওসি প্রদীপ কুমার দাশ বলেন- সম্প্রতি প্রথম আলোতে আমায় নিয়ে হোয়াইক্যয়ের যে সব বিষয় তুলে ধরছেন তা সঠিক নয়, আমি কাজ শুরু করার আগে যাচাই -বাছাই ও সমাজের সকল স্তরের উচ্চপদস্থ মানুষের তথ্য নিয়ে ও পুলিশ সুপারের সাথে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকি। প্রমাণ ছাড়া বা বিনাদোষে কাউকে মামলার আওতায় আনেনি, আর আপনাদের সহযোগীতা ছাড়া কোন কাজ আমি করি নাই। ইদানিং আমার বিরুদ্ধে কিছু লোক গভীর ষড়যন্ত্র শুরু করেছে, তার জবাব আপনারা ভাল জানেন। তিনি আরো বলেন, আমি মাদক নির্মূলে করতে গিয়ে অপারাধ করেছি সে কথা যদি আপনারা বলেন আমি এখান থেকে আজই চলে যাবো।এখানে আমি থাকবো না। যাকে নিয়ে টেকনাফে কাজ চলবে থাকে নিয়ে কাজ করেন। আমি সৃষ্টিকর্তার কাছে হাজির নাজির করে বলছি কোন দিন নিরীহ ব্যক্তিদেরকে অন্যায় করেনি। পহেলা আগস্ট থেকে টেকনাফ মডেল থানাকে দূর্নীতি মুক্ত ঘোষনা করেছি। এ থানায় কোন দূর্নীতি থাকতে পারবে না।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ