টেকনাফে আরো এক রোহিঙ্গার লাশ

জাফর আলম গুরা [] টেকনাফ উপজেলার শাহপরীরদ্বীপ ঘোলার চর থেকে ভাসমান অবস্থায় আরো এক রােহিঙ্গার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।
ধারণা করা হচ্ছে গত রবিবার রাতে শাহপরীরদ্বীপে নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ স্বজনদের লাশ।
এ ঘটনায় এ পর্যন্ত উদ্ধার হওয়া ৩২ জনের

জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ছোট ছোট নৌকায় আসছে রোহিঙ্গারা
মধ্যে ১৬টি শিশু, ১৩ নারী ও ৩ জন পুরুষ রয়েছে।

পুলিশ জানায়, মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের নাইক্ষ্যংদিয়া এলাকা থেকে গত রোববার সন্ধ্যায় নারী, শিশুসহ ৫০ জনের বেশি রোহিঙ্গা ইঞ্জিনচালিত ওই নৌকায় করে টেকনাফে আসছিল। রাত নয়টার দিকে নৌকাটি টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপের ঘোলারচর এলাকায় নাফ নদী ও সাগরের মোহনায় ঝোড়ো হাওয়ার কবলে পড়ে ডুবে যায়। তখন অনেকে নিখোঁজ ছিল।

কোস্টগার্ড শাহপরীর দ্বীপ স্টেশন কমান্ডর লেফটেন্যান্ট জাফর ইমাম সজীব প্রথম আলোকে বলেন, আজ সকালে সাড়ে আটটার দিকে শাহপরীর দ্বীপ ঘোলারচর এলাকা থেকে ২৫ থেকে ৩০ বছর বয়সী এক রোহিঙ্গা পুরুষের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশটি টেকনাফ থানা-পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাইন উদ্দিন খান প্রথম আলোকে বলেন, লাশটি দাফনের প্রক্রিয়া চলছে।

২৯ আগস্ট থেকে ৮ অক্টোবর পর্যন্ত নাফ নদী ও বঙ্গোপসাগরে রোহিঙ্গা বহনকারী ২৫টি নৌকাডুবির ঘটনায় ১৬৬ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। তাদের মধ্যে একজন বাংলাদেশি। তিনি নৌকার মাঝি ছিলেন। উদ্ধার হওয়া লাশের মধ্যে উখিয়া থেকে ২৮ এবং টেকনাফ থেকে ১৩৮ জন রোহিঙ্গার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে ৮৫টি শিশু, ৫২ নারী ও ২৯ জন পুরুষ।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।