টেকনাফে এক কোটি ২০ লাখ টাকার ইয়াবা উদ্ধার

টেকনাফে এক কোটি ২০ লাখ ইয়াবা উদ্ধার

কক্সবাজারের টেকনাফে ৪০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করেছে।
২৮ এপ্রিল রাতে টেকনাফ ব্যাটালিয়ন (২ বিজিবি) এর অধীনস্থ উনচিপ্রাং বিওপির দায়িত্বপূর্ণ খালেরমুখ পােষ্ট হতে দক্ষিণে এবং বিআরএম-১৭ হতে ১.৫ কিঃ মিঃ উত্তরে উনচিপ্রাং মাঠ এলাকা দিয়ে ইয়াবার একটি বড় চালান বাংলাদেশে পাচার হতে পারে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে
উনচিপ্রাং বিওপি’র বিশেষ টহলদল দ্রুত বর্ণিত এলাকায় গমন করতঃ পানি উন্নয়ন বাের্ড কর্তৃক নির্মাণাধীন
বেড়ীবাঁধের আঁড় নিয়ে গােপনে অবস্থান গ্রহণ করে। আনুমানিক ৮ টার দিকে টহলদল ২ জন দুষ্কৃতকারী।
ব্যক্তিকে ০১ টি ব্যাগ হাতে করে বর্ণিত এলাকা দিয়ে নাফ নদীর কিনারা হয়ে উনচিপ্রাং মাঠের দিকে আসতে দেখে। টহলদল উল্লেখিত ব্যক্তিদের দেখা মাত্রই চ্যালেঞ্জ করে খুব দ্রুত অগ্রসর হয়। দুষ্কৃতকারী ব্যক্তিগণ দূর হতে বিজিবি
টহলদলের উপস্থিতি অনুধাবন করা মাত্রই বহনকৃত ব্যাগ ফেলে দিয়ে অন্ধকারের সুযােগ নিয়ে নাফ নদী সাঁতরিয়ে
মিয়ানমারের দিকে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে টহলদল বর্ণিত স্থানে পৌঁছে তল্লাশী অভিযান পরিচালনা করে ইয়াবা
পাচারকারীদের ফেলে যাওয়া ০১টি ব্যাগ উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত ব্যাগের ভিতর হতে ১,২০,০০,০০০/- (এক
কোটি বিশ লক্ষ) টাকা মূল্যমানের ৪০,০০০ (চল্লিশ হাজার) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। ইয়াবা
কারবারীদের আটকের নিমিত্তে বর্ণিত এলাকা ও পার্শ্ববর্তী স্থানে পরবর্তী ২১৩০ ঘটিকা পর্যন্ত অভিযান পরিচালনা করা
হলেও কোন পাচারকারী/তাদের সহযােগীকে আটক করা সম্ভব হয়নি। উক্ত স্থানে অন্য কোন অসামরিক ব্যক্তিকে
পাওয়া যায়নি বিধায় ইয়াবা কারবারীদের সনাক্ত করাও সম্ভব হয়নি। তবে তাদেরকে সনাক্ত করার জন্য অত্র
ব্যাটালিয়নের গােয়েন্দা কার্যক্রম চলমান রয়েছে। উদ্ধারকৃত মালিকবিহীন ইয়াবাগুলাে বর্তমানে ব্যাটালিয়ন সদরের
ষ্টোরে জমা রাখা হবে এবং প্রয়ােজনীয় আইনী কার্যক্রম গ্রহণ পরবর্তীতে তা উর্দ্ধতন কর্মকর্তা, চীফ জুডিসিয়াল
ম্যাজিস্ট্রেট, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে
ধ্বংস করা হবে।
স্বাক্ষরিত –
লেঃ কর্ণেল মােহাম্মদ ফয়সল হাসান খান, বিজিবিএম, পিএসসি
অধিনায়ক, টেকনাফ ব্যাটালিয়ন (২ বিজিবি)

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ