টেকনাফে জোরপূর্বক জমি জবর দখলের অভিযোগ, মালামাল লুট

বার্তা পরিবেশক []
টেকনাফে ভুমিদস্যু ও সন্ত্রাসী কর্তৃক জোরপূর্বক জমি দখলের উদ্দেশ্যে দোকানপাট ভাংচুর ও দোকানের মালামাল লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে।
এ ঘটনায় টেকনাফ সদর ইউনিয়নের মিঠাপানিরছড়া গ্রামের আমির হামজার স্ত্রী হামিদা বেগম বাদী হয়ে টেকনাফ মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। ৩ নভেম্বর সকাল ১১ টার দিকে মিঠাপানির ছড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
থানায় দায়েরকৃত অভিযোগে একই এলাকার আলিম উদ্দিনের ছেলে সৈয়দ আহাম্মদ (৫০) কে প্রধান আসামি করে ১২ জনের রিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়।
থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে- মিঠাপানির ছড়া বাজারের উত্তর পাশে অবস্থিত স্বামীর দখলীয় জমিতে দোকানপাট নির্মাণ করে তার ছেলে সরোয়ার কামাল (২৩) কম্পিউটারের দোকানের ব্যবসা করে আসছে।
সে প্রতিদিনের মতো ৩ নভেম্বর সকাল ১১ টার দিকে দোকান বন্ধ করে খাওয়া দাওয়া করার জন্য নিজ বাড়ীতে আসলে পূর্ব থেকে উৎপেতে থাকা অভিযুক্তরা দা, কিরিচ, লাঠি ও লোহার রডসহ অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে দলবদ্ধভাবে তার দোকানের তালা ভাংচুর করে দোকানের ভেতরে থাকা ১টি ল্যাপটপ, ১টি কম্পিউটার ডেক্সটপ, ১পি প্রিন্টার, ১টি লেমেন্টিং মেশিন, দোকানের অন্যন্য মালামাল ও নগদ ৫৫ হাজার টাকাসহ আনুমানিক ২ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।
বিবাদীরা মালামাল লুটের সময় তাদের শৌর চিৎকারে দোকানের পাশ্ববতর্ী থাকা লোকজন এগিয়ে আসলে অন্যন্য অভিযুক্তরা পালিয়ে গেলেও সৈয়দ আহমদ এলাকাবাসীর রোষানলে পড়ে আহত হয়।
বাদী হামিদা বেগম স্থানীয় সাংবাদিকদের জানায়, সৈয়দ আহমদ একজন ভুমিদস্যু ও সন্ত্রাসী বিধায় দেশের প্রচলিত আইন কানুন কিছুই মানে না। স্থানীয়ভাবে একাধিক শালিস হলেও সে শালিস মানতে নারাজ। সে দীর্ঘদিন ধরে পাহাড়ি এলাকায় সন্ত্রাসী বাহিনী গঠন করে সামাজিক বনায়নের গাছ কর্তন ও অন্যের জমি দখলের পায়তারা চালিয়ে আসছে। তাদেরকে আইনের আওতায় আনার দাবী জানান তিনি।
টেকনাফ সদর ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ওমর হাকিম মেম্বার জানান- অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে পাহাড়ি জমি দখল, গাছ কর্তন, পাহাড় কেটে রোহিঙ্গাদের বসতি স্থাপন, ইয়াবা ব্যবসা, মানবপাচারসহ অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে এলাকায়। তাদের সাথে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গ্রুপের যোগসাজগ রয়েছে।

এব্যাপারে টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হাফিজুর রহমান জানান- এ সংক্রান্ত একটি অভিযোগ পেয়েছি, তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ