টেকনাফে বিজিবি’র গুলিতে ইয়াবা পাচারকারী নিহত


মাদক কারবারে জড়িত অপরাধীদের নিশ্চিহ্ন করতে টেকনাফে ২ বিজিবি সদস্যদের মাদক বিরোধী চলমান যুদ্ধ এখনো অব্যাহত রয়েছে।

সেই ধারাবাহিকতার অংশ হিসাবে ১৪ মার্চ ভোর রাতে বিজিবি’র সাথে কথিত বন্দুকযুদ্ধে এক মাদক পাচারকারী নিহত হয়েছে।

সূত্রে আরো জানা যায়,১৪ মার্চ ভোর রাত ৪টার দিকে টেকনাফ পৌরসভা খাংকার ডেইল নাফনদী সীমান্ত উপকুলের লবন মাঠে মাদক পাচারে জড়িত অপরাধী চক্রের সাথে গোলাগুলি সংগঠিত হয়। উক্ত ঘটনায় এক মাদক কারবারী গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায়।

জানা যায়,নিহত মাদক পাচারকারী টেকনাফ পৌরসভা ৪নং ওয়ার্ড নতুন পল্লান পাড়া এলাকার আব্দুল গফুরের পুত্র নুরুল ইসলাম(৩০)

সূত্রে জানা যায়,ইয়াবা পাচারের গোপন সংবাদ পেয়ে বিজিবি সদস্যরা অভিযানে গেলে মাদক কারবারী বিজিবিকে লক্ষ্য করে গুলি বর্ষন করে বিজিবি সদস্যরাও আত্বরক্ষার্থে পাল্টা গুলি করে এতে এক মাদক পাচারকারী গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায়।

এদিকে খবর পেয়ে টেকনাফ থানার এসআই মোহাম্মদ বাবুল’র নেতৃত্ব একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে গুলিবিদ্ধ মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়না তদন্ত রিপোর্ট তৈরী করার জন্য কক্সবাজার মর্গে প্রেরন করেছে। ঘটনাস্থল তল্লাশী করে,৭ হাজার ইয়াবা,দেশীয় তৈরী ২টি লম্বা কিরিচ উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। হয়েছে পুলিশ।

এই অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে টেকনাফ ২ বিজিবি’র ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক শরিফুল ইসলাম জমাদ্দার জানান,টেকনাফ পৌরসভা খাংকার ডেইল নাফনদী সীমান্তে মাদক পাচারকারী চক্রের সাথে অত্র এলাকায় দায়িত্বে থাকা বিজিবি সৈনিকদের সাথে গোলাগুলিতে ১ মাদক কারবারী নিহত হয়েছে।

তিনি বলেন যারা এখনো মাদক পাচারসহ নানা অপকর্মে জড়িত তাদেরকে আইনের আওয়াতাই নিয়ে আসার জন্য আমাদের অভিযানকে আরো জোরদার করা হবে।

পাশাপাশি চিহ্নিত মাদক কারবারীদের আইনের আওয়াতাই নিয়ে এসে নিশ্চিহ্ন করার জন্য বিজিবি সদস্যদের মাদক বিরোধী চলমান যুদ্ধ অব্যাহত থাকবে।

তিনি আরো বলেন মাদক পাচারে জড়িত অপরাধীদের সঠিক তথ্য দিয়ে বিজিবি সদস্যদের সহযোগীতা করলে মাদক পাচার প্রতিরোধে বিজিবি’র ভুমিকা আরো বেগবান হবে।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।