টেকনাফে মাদকাসক্ত ছেলের হামলায় আহত পিতার মৃত্যু

মাদকাসক্ত ছেলের হামলায় আহত পিতা হাকিম আলি (৫৫) ১ মাস ২১ দিন পর মারা গেছেন। টেকনাফ পৌরসভার ইসলামাবাদ এলাকায় ঘটেছে এ ঘটনা। ১৩ জুন রাত ১টার দিকে হাকিম আলি নিজ বাড়িতে মারা যান।
জানা যায়, ১৮ এপ্রিল ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত অবস্থায় মাদকাসক্ত ছেলে রহিমুস সাদেক (২২) মাদকের টাকার জন্য পিতার সাথে বাকবিতন্ডা শুরু করে। এক পর্যায়ে পিতাকে ধাক্কা দিলে পিলারের সাথে মাথায় আঘাত লেগে রক্তাক্ত হন। এসময় পার্শ্ববর্তী ব্যবসায়ীরা আহত হাকিম আলীকে হাসপাতালে ভর্তি করেন। চিকিৎসা শেষে হাকিম আলি বাড়ী ফিরলেও আর সুস্থ্য হতে পারেননি। মাথার আঘাতে অসুস্থতায় ভোগে শেষ পর্যন্ত ১৩ জুন রাতে মারা যান।
এদিকে পিতাকে আঘাতকারী ছেলেকে সেদিন পার্শবর্তী ব্যবসায়ীরা আটক করে টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের কাছে নিয়ে গেলে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ১ বছরের সাজা প্রদান করে কারাগারে প্রেরন করেছিলেন।
টেকনাফ পৌরসভাধীন ২নং ওয়ার্ড পুরান পল্লানপাড়ার বাসিন্দা হাকিম আলী একজন পরিশ্রমী লোক। মাইক সাউন্ডবক্স ভাড়া দিয়ে ও পানের দোকান করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিল। হাকিম আলী ২ ছেলে ৩ মেয়ের জনক। ৮ বছর আগে স্ত্রী মারা গেলেও অশান্তির আশংকায় সন্তানদের দিকে চেয়ে ২য় বিয়ে করেননি। বড় পুত্র রহিমুচ্ছাদেক (২৩) বখাটে ও মাদকসেবী। বহু চেষ্টা করেও পুত্রতে সৎ পথে ফেরাতে পারেননি। ##

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ