টেকনাফে ৩ কোটি টাকার ইয়াবাসহ ২ পাচারকারী আটক: ২ বিজিবি সদস্য আহত:৩ রাউন্ড গুলিবর্ষণ

mnm
নুর হাকিম আনোয়ার []
টেকনাফে পৃথক অভিযানে ৯৮ হাজার ৬৫০ পিস ইয়াবা ও একজন গুলিবিদ্ধসহ ২ পাচারকারীকে আটক করেছে বিজিবি। এসময় দুই বিজিবি সদস্য আহত হয়েছে।
টেকনাফ ৪২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল আবুজার আল জাহিদ জানান- ৭ সেপ্টেম্বর রবিবার ভোরে টেকনাফ সদরের আড়াই নং স্লুইচ গেইট সীমান্ত দিয়ে ইয়াবা প্রবেশের গোপন সংবাদে নাফনদীর কিনারায় কেওড়া বাগানে তাঁর নেতৃত্বে বিজিবির বিশেষ টহলদল উৎপেতে থাকে। এক পর্যায়ে ইয়াবা পাচারকারীর দুটি নৌকায় ১২/১৩ জনের পাচারকারীদল নদীর পাড়ে নামতে দেখে বিজিবি টহল দল এগিয়ে যায়। এসময় পাচারকারীরা বিজিবির উপর দেশীয় অস্ত্র দিয়ে হামলা করে। বিজিবি আত্মরক্ষার্থে ৩ রাউন্ড গুলি বর্ষনের মাধ্যমে পাচারকারীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এতে বিজিবি ২ সদস্য ল্যান্সনায়েক হাবিব ও সেলিম আহত হয়।পরে বিজিবি ঘটনাস্থল থেকে একটি কিরিচ ৩টি ইয়াবার পোটলাসহ এক চোরাকারবারীকে গুলিবিদ্ধ মিয়ানমারের মংডু জেলার কায়াংখালী এলাকার মৃত সোলতানের ছেলে মোঃ রিয়াজুল হক (২০) কে আটক করে। পরে ইয়াবার পোটলাগুলো বিজিবি ব্যাটালিয়ন সদর দপ্তরে গণনা করে ৯৬ হাজার ৬০০ পিস ইয়াবা পাওয়া যায়। যার মুল্য ২ কোটি ৮৮ লক্ষ টাকা।
অপরদিকে একইদিন ভোর রাতে হ্নীলা জাদীমুরা এলাকার নাফনদীতে অভিযান চালিয়ে ২ হাজার ৬৫০ পিস ইয়াবাসহ অপর এক মিয়ানমারের মংডু জেলার আশিক্যাপাড়ার নুরুল আমিনের ছেলে নুর কামাল (২৪) কে আটক করে। আটক ইয়াবার মূল্য ৭ লক্ষ ৯৫ হাজার টাকা।
ধৃত আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে টেকনাফ মৌলভী পাড়া এলাকার নুরুল ইসলামের ছেলে আবদুল গফুর(২৮)কে পলাতক আসামী করে টেকনাফ মডেল থানায় পৃথক মামলা রুজু করেছে বলে বিজিবির এক সংবাদ সম্মেলনে জানান।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।