টেকনাফ দমদমিয়ায় ইয়াবা ও ১ টি সিএনজিসহ ২ কারবারীকে গ্রেফতার

র‌্যাব এলিট ফোর্স হিসেবে আতœপ্রকাশের সূচনালগ্ন থেকেই বিভিন্ন প্রকার অপরাধ নির্মূলের লক্ষে অত্যন্ত আন্তরিকতা ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করে আসছে। আইনের শাসন সমুন্নত রেখে দেশের সকল নাগরিকের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষে বিভিন্ন ধরনের অপরাধ চিহ্নিতকরণ এবং তার প্রতিরোধে র‌্যাব সর্বদা কাজ করে আসছে। দেশব্যাপী মাদকদ্রব্যের বিস্তাররোধ এবং মাদকসেবী ও মাদক ক্রয়-বিক্রয়ের সাথে সংশ্লিষ্ট অপরাধীদের প্রতিহত করার লক্ষ্যে র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে অভিযান পরিচালনা করে আসছে।
এরই ধারাবাহিকতায়, র‌্যাব-১৫, কক্সবাজার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, কতিপয় মাদক কারবারী কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানাধীন দমদমিয়া সাকিনস্থ কেয়ারী ট্যুরস এন্ড সার্ভিসেস এর সামনে টেকনাফ টু কক্সবাজার রোডের উপর মাদকদ্রব্য বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে একটি সিএজি চালিত অটো রিক্সা নিয়ে অবস্থান করছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১৫ এর একটি চৌকস আভিযানিক দল ২৯/০৮/২০২১ খ্রিঃ আনুমানিক ১৩.১৫ ঘটিকায় উপরোক্ত স্থানে পৌঁছালে র‌্যাব সদস্যদের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক কারবারীরা সিএনজি থেকে নেমে পালিয়ে যাওয়ার প্রাক্কালে আসামী ১। মোঃ সলিম (২৫), পিতা-মৃত- আব্দুল করিম, মাতা-মৃত আয়েশা বেগম, ২। মুফিজ আলম (২৬), পিতা-খলিল আহম্মদ, মাতা-নুর জাহান, উভয় সাং-খারাংখালী, পূর্ব মহেশ খালী পাড়া, ওয়ার্ড নং-০৮, ইউ/পি হোয়াইকং, থানা- টেকনাফ, জেলা-কক্সবাজারদের ধৃত করে। ঐ সময় উপস্থিত স্বাক্ষীদের সম্মুখে ধৃত আসামীদের দেহ তল্লাশী করে সর্বমোট ৯,৩৩০ (নয় হাজার তিনশত ত্রিশ) পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ সিএনজিটি জব্দ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে ধৃত আসামীরা স্বীকার করে যে, তারা দীর্ঘদিন যাবৎ টেকনাফের সীমান্তবর্তী এলাকা হতে মাদকদ্রব্য ইয়াবা ট্যাবলেট সংগ্রহ করে কক্সবাজারসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিক্রয় করে আসছে।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।
——স্বাক্ষরিত———
আবদুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী
সিনিঃ সহকারী পুলিশ সুপার
সিনিঃ সহকারী পরিচালক (মিডিয়া এন্ড অপারেশনস্)
পক্ষে অধিনায়ক

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ