টেকনাফ হ্নীলা নয়াপাড়া জাইল্যাঘাটার নেওয়াজ শরিফের ইয়াবা সিন্ডিকেট অধরা

টেকনাফ নীলা নয়াপাড়া জাইল্যাঘাটার নেওয়াজ শরিফের ইয়াবা সিন্ডিকেট অধরা

বিশেষ প্রতিনিধিঃ
ইয়াবা ব্যবসা করে জিরো থেকে কোটি কোটি টাকার মালিক নেওয়াজ শরীফ। অস্বাভাবিকভাবে বিত্ত-বৈভবের মালিক হলেও এখনো ধরা-ছোঁয়ার বাইরে তিনি।
এলাকাবাসী ও বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, অত্যন্ত সুচতুর নেওয়াজ শরীফ এখনো ইয়াবা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। ইয়াবা বিক্রি করে বর্তমানে কোটি কোটি টাকার মালিক তিনি। তবে সে নিজেকে দোকান করে দাবী করলেও নেপথ্যেে রয়েছে মূলত ইয়াবা ব্যবসা । তার সাথে মিয়ানমার ছাড়াও হ্নীলা ও কক্সবাজার চট্রগ্রাম,ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানের বড় বড় কারবারীরা রয়েছে। এদের মধ্যে রাজনৈতিক নেতারাও রয়েছে। এলাকাবাসীর দাবি, সামান্য হার্ডওয়ার দোকান ব্যবসা করে এত আয় সম্ভব নয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যবসায়ী বলেন, আমি ২০০০ সাল থেকে মুদির দোকান ব্যবসা করছি। এ ব্যবসার টাকা সীমিত, নেওয়াজ শরিফ ইয়াবা ব্যবসা করে কোটি টাকার মালিক হয়েছে, তা নিঃসন্দেহে ইয়াবা ব্যবসা করেই হয়েছে। ইয়াবা কারবারের কারণে তাকে সমাজে থেকে বয়কট করা উচিত বলেও বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে।

কে এই নেওয়াজ শরিফ?

টেকনাফ থানাধীন নীলা ইউনিয়নের নয়াপাড়া,জাইল্যাঘাটা এলাকার বাড়ুর ছেলে নেওয়াজ শরিফ (২৫)। বিগত ৩-৪ বছর আগে বেকার ছিল। আর এখন হঠাৎ কোটি কোটি টাকার মালিক নেওয়াজ শরিফ! গাড়ী, বাড়ি সব কিছুই আছে তার।

পিতার মাতার বাড়ি আগে মিয়ানমার ছিল, তাদের মিয়ানমারে অনেক আত্মীয় স্বজন রয়েছে। তার মামাও একজন ইয়াবা কারবারি। তাদের মিয়ানমারসহ কক্সবাজার, চট্টগ্রাম,ঢাকায় একটি বিশাল ইয়াবার সিন্ডিকেট রয়েছে।

এদিকে প্রশাসন মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণা করলেও অদৃশ্য শক্তির গুনে নেওয়াজ শরিফ রয়েছে বহাল তরিয়তে।

অনুসন্ধান সূত্রে জানা গেছে, গত কয়েক দিন আগে তার ছোট ভাই তাহসান কক্সবাজাররে ইয়াবা নিয়ে আটক হয়েছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের হাতে। সে ইয়াবা গুলো নাকি নেওয়াজ শরিফের।

টেকনাফ মডেল থানার ওসি হাফিজুর রহমান জানান, ইয়াবা কারবারিদের ছাড় দেওয়া হবেনা,সে যত বড় শক্তিশালী হউক।

এব্যাপারে নেওয়াজ শরিফের সাথে যোগাযোগ করা হলে, তিনি দাবি করেন, আমি একজন ইলেক্ট্রনিক দোকান ব্যবসায়ী।ইয়াবা নিয়ে আটক তার ছোট ভাই তাহসানের ব্যপারে জানতে চাইলে আমি কিছু জানিনা।যা পারেন লিখেন আমাদের কিছু হবেনা।আমাদের উপরে হাত আছে।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ