টেকনাফ পৌরসভায় ১০ মাস ধরে বন্ধ ১০ টাকা দামের চাল, বিপাকে জনসাধারণ

টেকনাফ পৌরসভায় ১০ মাস ধরে বন্ধ
১০ টাকা দামের ওএমএস চাল, বিপাকে জনসাধারণ

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় কর্মহীনদের সহায়তার লক্ষ্যে সরকার ঘোষিত ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রির বিশেষ ওএমএস কর্মসূচি চালু করেছিল খাদ্য মন্ত্রণালয়।
গত বছরের জুন মাসে টেকনাফ পৌরসভায় বিশেষ ওএমএস চাল বিতরণ শুরু করে। শুরুতে মাত্র ২০ কেজি চাল দেয়া হলেও হঠাৎ বন্ধ করে দেয় সরকার।

গত বছরের ২৫ মার্চ জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী করোনা উদ্ভূত পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য ওএমএস খাতে ভোক্তা পর্যায়ে প্রতি কেজি চালের মূল্য ৩০ টাকার স্থলে ১০ টাকা নির্ধারণ করার ঘোষণা দেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে অর্থ বিভাগ চালের মূল্য কেজি প্রতি ১০ টাকা নির্ধারণ করে। এরপর খাদ্য মন্ত্রণালয় সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটির কারণে গৃহে অবস্থানকারী সাধারণ শ্রমজীবী, দিনমজুর, রিকশাচালক, ভ্যানচালক, পরিবহন শ্রমিক, ফেরিওয়ালা, চায়ের দোকানদার, ভিক্ষুক, ভবঘুরে ও অন্যান্য সব কর্মহীন মানুষের জন্য ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রির কার্যক্রম নেয়।

বর্তমানে লকডাউন চলাকালে টেকনাফে শিল্প -কারখানা না থাকায় বেকারদের জন্য ১০ টাকা দামের ওএমএস চাল বিতরণ কার্যক্রম চালু করার দাবী করেছেন সচেতন মহল।

 

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ