ফিফা বিশ্বকাপ ২০১৮: ‘আমি ছিলাম বিশ্বকাপের হানি শট’

আকর্ষণীয় ও সুন্দরী সমর্থকদের অনেক সময়েই ‘জুম’ করে বা খুব বড় করে তুলে ধরে। ভিডিওগ্রাফির পরিভাষায় যাকে কিনা বলে ‘হানি শট’।

এবারের ফুটবল বিশ্বকাপে খেলা চলাকালীন সময়ে গ্যালারি থেকে বেছে বেছে সুন্দরী নারীদের ছবি প্রচারে আপত্তি তুলেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা।

সম্প্রচারের দায়িত্বে থাকা ক্যামেরাগুলো বৈচিত্র্য তুলে ধরতে আকর্ষণীয় ও সুন্দরী সমর্থকদের অনেকসময়েই ‘জুম’ করে বা খুব বড় করে তুলে ধরে।

ভিডিওগ্রাফির পরিভাষায় যাকে কিনা বলে ‘হানি শট’। আর সেখানেই সমস্যা দেখছেন ফিফার ডাইভারসিটি প্রধান।

তবে এমন ‘হানি শট’ অনেকের জীবনে পরিবর্তন নিয়ে এসেছে। বিশ্বের ক্ষমতাবান ও প্রভাবশালী নারীদের নিয়ে বিবিসির ১০০ নারী সিরিজে স্থান পাওয়া নাটালিয়া বেটটানকুর জানিয়েছেন তেমনটিই।

২০১৪ সালের ব্রাজিল ও কলম্বিয়ার খেলায় গ্যালারিতে নিজ দেশের সমর্থন জানাচ্ছিলেন নাটালিয়া। সেসময় তার ছবির প্রচার পরবর্তী জীবনে নাটালিয়াকে করে তোলে একজন মডেল এবং টিভি ব্যক্তিত্ব।

“আমার কোনো ধারণাই ছিল না কখন ক্যামেরা আমাকে জুম করে তুলে ধরেছে। আর সেই সাথে অবশ্যই জানতাম না যে পরবর্তীতে কী হবে এর ফল।” বিবিসিকে এভাবে সে সময়ের কথা জানিয়েছেন মিজ. নাটালিয়া।

পপ স্টার রিয়ানার দৃষ্টি কাড়ে নাটালিয়ার ছবি আর তিনি সেটি তার টুইটারে প্রকাশ করেন ‘কলম্বিয়ান সুন্দরী’ শিরোনামে।

আর এতেই জীবন বদলে যায় তার।
ছবির কপিরাইট NATALIA BETANCOURT
Image caption ২০১৪ সালের ব্রাজিল ও কলম্বিয়ার খেলায় গ্যালারিতে নিজ দেশের সমর্থন জানাচ্ছিলেন নাটালিয়া। সেসময় তার ছবির প্রচার পরবর্তী জীবনে নাটালিয়াকে করে তোলে একজন মডেল এবং টিভি ব্যক্তিত্ব।

নাটালিয়া বিশ্বকাপ শেষে ব্রাজিল থেকে ফিরে আসার সময় জানতেনও না যে কি বিস্ময় অপেক্ষা করছে তার জন্যে।

নাটালিয়া বলেন যে, “এই ছবি আমার জন্যে মিডিয়ার দরজা খুলে দেয়। এর আগে আমি আমার বন্ধুর সাথে একটি নির্মাণ সামগ্রী সরবরাহ কোম্পানি খুলেছিলাম।”

এক মাসের মধ্যে নাটালিয়া চলে আসেন পুরুষদের একটি ম্যাগাজিনের প্রথম পাতায়।

এখনো বন্ধুর সাথে তার সেই নির্মাণ সামগ্রীর কোম্পানিটি থাকলেও নাটালিয়া দেশটির অনেকগুলো পণ্যের মডেল, সম্প্রতি তিনি কাজ করছেন চুলের সৌন্দর্য রক্ষার একটি আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের সাথে।

তবে বিশ্বকাপের শেষ সপ্তাহে এসে ফিফার ডাইভারসিটি প্রধান ফেডেরিকো আদিয়েচি সম্প্রচার কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেছেন ভিড়ের মাঝ থেকে খুঁজে খুঁজে আকর্ষণীয় নারীদের ছবি প্রচার না করতে।

এই রাশিয়া বিশ্বকাপে আলোকচিত্র এজেন্সি গেটি ইমেজ প্রকাশ করেছিল ‘দা হটেস্ট ফ্যান অ্যাট দ্য ওয়ার্ল্ড কাপ’ শিরোনামে একটি অ্যালবাম। যার মূল লক্ষ্য ছিল সুন্দরী তরুণীরা।

পরে ‘বিবেচনায় দুঃখজনকভাবে ত্রুটি’ বলে এটি তারা সরিয়ে ফেলে।

আরো পড়ুন:

ক্রোয়েশিয়া: যে পাঁচটি তথ্য হয়তো জানা নেই

বিশ্বকাপ ২০১৮: বহু স্বপ্নের সামনে ক্রোয়েশিয়া

বিশ্বকাপ ২০১৮: কেন কানটে ফ্রান্সের নেপথ্য নায়ক

রাশিয়া বিশ্বকাপঃ শেষের আগে কেমন চলছে মস্কোর প্রস্তুতি
ছবির কপিরাইট Reuters
Image caption রাশিয়া বিশ্বকাপের এই ছবিটি বহু দেশে প্রকাশিত হয়েছে

“কলম্বিয়ার একটি টিভির রিয়ালিটি শো-তে অংশ নিয়ে আমার সুযোগ হয় সব তারকাদের সাথে অংশ নেবার, নাচানাচি করার।” বলছিলেন মিজ. নাটালিয়া।

রাশিয়া বিশ্বকাপের শুরুতে বর্ণবৈষম্য নিয়ে উদ্বেগ থাকলেও পরবর্তীতে ‘সেক্সিজম’ একটি বড় সমস্যা হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে।

বৈষম্য বিরোধী সংগঠন ‘ফেয়ার নেটওয়ার্ক’ ও স্থানীয় পুলিশের সহায়তায় হয়রানির বিভিন্ন অভিযোগ খুঁজে বের করে শাস্তির ব্যবস্থা করছে ফিফা।

এরই মধ্যে ‘দ্য ফ্যান গার্লস’ নামে অনলাইন ভিত্তিক একটি গ্রুপ প্রকাশ করেছে খেলা দেখতে যাওয়া এমন কিছু নারী সমর্থকদের ছবি, যাকে তারা বলছে “ডিফারেন্ট কাইন্ড অব উইমেন”।

কানাডায় একটি ফুটবল ম্যাচ দেখতে গিয়ে এমনই ‘হানি শট’ থেকে পরবর্তীতে বিশ্বখ্যাত হয়েছেন এমন একজন তারকা হলেন পামেলা এন্ডারসন।

তাই এসব ‘হানি শট’এর বিরোধিতা থাকলেও পক্ষের যুক্তিও তুলে ধরেছেন নাটালিয়া বেটটানকুর।

“আমি মনে করিনা এটি খুব আপত্তিকর। ফুটবল যে নারী পুরুষ উভয়ের জন্যেই খেলা হয় এতে বরং সেটিই প্রমাণ হয়,” নাটালিয়ার বক্তব্য।

ব্রাজিল বিশ্বকাপ ছিল নাটালিয়ার প্রথম অভিজ্ঞতা। এবারও রাশিয়ায় খেলা দেখতে এসেছেন তিনি এবং ইংল্যান্ড কলম্বিয়া ম্যাচে আবারো ধরা পরেছেন টেলিভিশন ক্যামেরায়।

তার মতে, “এবারো আমাকে জুম করে দেখানো হয়েছে, আর আমারতো মনে হয় আগের চাইতে আরো হাসিখুশিই দেখাচ্ছিল।”

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।