বিশেষ ফ্লাইটে যেতে পারবেন প্রবাসীরা

 

‘সর্বাত্মক লকডাউনে’ নিয়মিত বিমান চলাচল বন্ধ থাকার মধ্যে প্রবাসীদের বিদেশে পাঠাতে বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।
আজ বুধবার (১৪ এপ্রিল) সচিবদের এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানিয়েছেন প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন। বিডিনিউজ
তিনি বলেন, “সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ওমান, কাতার ও সিঙ্গাপুরের জন্য অতি শিগগির বিশেষ ফ্লাইট চালু করা হবে।”
বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে বিস্তারিত কর্মপরিকল্পনা আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) চূড়ান্ত করবে বলে জানান প্রবাসীকল্যাণ সচিব।
পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনের সভাপতিত্বে ঐ সভায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, প্রবাসী কল্যাণ এবং বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
সভার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে প্রবাসীকল্যাণ সচিব বলেন, “বিদেশগামী যাত্রীদের করোনাভাইরাস নেগেটিভ সনদসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিমানবন্দরে আনার দায়িত্ব রিক্রুটিং এজেন্সিসমূহকে নিতে হবে।”
শর্তসাপেক্ষে প্রবাসীকর্মীদের দেশে ফিরতে দেওয়ার সিদ্ধান্তও সভায় নেওয়া হয়েছে জানিয়ে মুনিরুছ সালেহীন বলেন, “প্রবাসী কর্মীগণ কেবলমাত্র জরুরি প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট বাংলাদেশ মিশনের ছাড়পত্র গ্রহণ করে এবং দেশে প্রযোজ্য কোয়ারেন্টিন শর্ত মেনে কোভিড নেগেটিভ সনদ নিয়ে দেশে আসতে পারবেন।”
বুধবার শুরু সর্বাত্মক লকডাউনের সময়ে বাংলাদেশ থেকে সব ধরনের আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছিল বেবিচক। ১৪ থেকে ২০ এপ্রিল লকডাউনের মধ্যে পড়া দুই ফ্লাইটের সময় এগিয়ে আনা হয়েছিল।
সর্বাত্মক লকডাউনের কারণে ফ্লাইট বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েন বিদেশে যাওয়ার অপেক্ষায় থাকা কয়েক হাজার প্রবাসী।
আব্দুল ওয়াদুদ সালেহ নামক এক কাতার প্রবাসী জানান, করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে এক বছর দুই মাস বাড়িতে বেকার বসে আছেন তিনি। ঋণ করে এখন একটা যাওয়ার বন্দোবস্ত করেছেন।
তিনি বলেন, ”আড়াই লাখ টাকা খরচ করে আবার কাতার যাওয়ার জন্য সব ঠিক করলাম। কিন্তু আবার লকডাউন শুরু। আমি বুঝি না যেতে কীসের প্রবলেম? যারা আসছে তাদের হোটেল কোয়ারেন্টিন করাক।”

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ