ভুল বিএস জরীপে টেকনাফে নামজারী করার পায়তারা

টেকনাফ প্রতিনিধি
টেকনাফ উপজেলার সদর ইউনিয়নের লেঙ্গুরবিল মৌজার ৩.৬০ একর জমির ভুল বিএস জরীপের কারণে আদালতে মামলাধীন জমির দখল করতে মোটা অংকের বিনিময়ে টেকনাফ ভূমি অফিসে নামজারী সৃজন করার পায়তারা চালিয়ে যাচ্ছে একদল ভুমিদস্যু। অভিযোগকারী মোহাম্মদ ইব্রাহীম গং এর দাবী বিএস ২১০ নং খতিয়ানের ১০৫৩৬,১০৫৩৭,১০৫৩৮,১০৫৩৯,১০৫৪২, ১০৫৪৩,১০৫৪৫,১০৫৪৭ নং দাগের তপশীলভূক্ত জমির আরএস ৬৪৪ নং খতিয়ান এবং এমআরআর ৭৯৭ নং খতিয়ানের রের্কডীয় মালিক হতে মৃত মকবুল আহমদের খরিদা সূত্রে প্রাপ্ত হয়ে ইব্রাহীম গং ওয়ারিশ সূত্রে মালিক হন।
অভিযোগকারী ইব্রাহীম গং জানান- আরএস মূলে খরিদকৃত জমির পিতার নামে ২১০ নং খতিয়ান রেকর্ড না হয়ে মোহাম্মদ হাশেম ও মোহাম্মদ কাশেমের নামে লিপিবদ্ধ হয়। উক্ত ২১০ নং বিএস খতিয়ানের বিরুদ্ধে কক্সবাজার বিজ্ঞ যুগ্ন জজ ২য় আদালতে ১০৯/২০০৯ ইং সংশোধনী মামলা দায়ের করি। বর্তমানে এই মামলটি বিচারাধীন রয়েছে। সম্প্রতি জমির মূল্যে বৃদ্ধি পাওয়ায় ভুল বিএস ২১০নং খতিয়ানভূক্ত মালিক মোঃ হাশেম ও মোঃ কাসেম গোপনে টেকনাফ এসআর অফিসের ৩০৫৫ ও ৩০৫৬ নং কবলামূলে ১৪ নভেম্বর ২০১৮ইং সনে রেজিষ্ট্রি সম্পাদন করে। যা নামজারী সৃজনের জন্য টেকনাফ ভূমি অফিসে নামজারী জমাভাগ মামলা নং- ২০৫৮(হ)।।-।।(২০১৮-১৯) সৃজনের জন্য রুজু করে। বর্তমানে জমিখানা তাদের কোন দখল নেই, উক্ত ২১০ নং বিএস খতিয়ানের নামজারী ১৬৮৮ (হ)।।-।। (২০১৮-১৯) ইং থেকে নামজারী সৃজন না করার জন্য টেকনাফ সদর ইউনিয়নের লেঙ্গুরবিল মাঠপাড়ার আবদুল করিমের ছেলে মাওলানা মোহাম্মদ ইসলাম ও তার স্ত্রী জামালিদা আক্তার, মৃত এজাহার মিয়ার ছেলে আবদুল শফি কে বিবাদী করে টেকনাফ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর অভিযোগ দায়ের করেছেন। এব্যাপারে অভিযোগকারী ইব্রাহীম গং প্রশাসনের সহযোগিতা ও নামজারী সৃজন না করার আকুল আবেদন জানিয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।