মধ্য জানুয়ারিতে নতুন সরকার

একাদশ জাতীয় সংসদের অধিবেশন বসছে নতুন বছরের প্রথম মাসেই। চলতি মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহ নাগাদ গঠিত হবে নতুন মন্ত্রিসভা। আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের একাধিক নেতার সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্য পাওয়া গেছে। সমকালকে তারা জানান, রোববার জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ভূমিধস বিজয়ের পর নবনির্বাচিত অধিকাংশ সংসদ সদস্য এখনও নির্বাচনী এলাকায় অবস্থান করছেন। তাদের মধ্যে দলটির নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের একাধিক নেতাও রয়েছেন। দু-একদিনের মধ্যে তারা ঢাকা ফেরার নতুন সংসদ অধিবেশনের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এরই মধ্যে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, কার্যপ্রণালিবিধি মেনেই নতুন সংসদের কার্যক্রম শুরু হবে। আপাতত এ-সংক্রান্ত নানা বিষয় খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

রংপুর-৬ আসনে এবারের নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছেন ড. শিরীন। বর্তমানে নিজের নির্বাচনী এলাকায় অবস্থান করছেন তিনি। দু-একদিনের মধ্যে তিনি ঢাকায় ফেরার পর নতুন সংসদ অধিবেশন নিয়ে আনুষ্ঠানিক আলোচনা শুরু হবে।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেন, নবনির্বাচিত এমপিদের শপথ গ্রহণের পর নতুন মন্ত্রিসভা গঠিত হবে। এরপর ডাকা হবে একাদশ সংসদের অধিবেশন। দশম সংসদের মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার পর নতুন সংসদের অধিবেশন ডাকার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান তিনি। ২৯ জানুয়ারি শেষ হচ্ছে দশ সংসদের মেয়াদ।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য লে. কর্নেল (অব.) ফারুক খান জানান, দশম জাতীয় সংসদের মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার পর জানুয়ারিতেই নতুন সংসদের অধিবেশন ডাকা হবে। সেক্ষেত্রে ২৮ জানুয়ারি একাদশ সংসদের অধিবেশন ডাকার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন নীতিনির্ধারক পর্যায়ের আরেকজন নেতা।

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে টানা দ্বিতীয় মেয়াদে দেশ পরিচালনার সুযোগ পায় আওয়ামী লীগ। ওই বছরের ১২ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে তৎকালীন সরকারের মন্ত্রিসভা গঠিত হয়। গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় নির্বাচনেও ইতিহাস গড়ে বিজয়ী হয়েছে আওয়ামী লীগ। টানা তৃতীয় মেয়াদে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালনের রেকর্ড গড়তে চলেছেন। নতুন সংসদ সদস্যদের গেজেট প্রকাশ এবং শপথ গ্রহণ শেষে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন শেখ হাসিনা। এরপর গঠন করা হবে নতুন মন্ত্রিসভা। আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ের একাধিক নেতা জানান, ১০ জানুয়ারির মধ্যে মন্ত্রিসভা গঠিত হতে পারে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেছেন, নতুন সরকার গঠনের ক্ষেত্রে মন্ত্রিসভা গঠনের আগে সংসদ সদস্যদের গেজেট এবং শপথের কার্যক্রম শেষ করতে হয়। এ জন্য নির্বাচন কমিশন ও সংসদের কিছু কাজ রয়েছে। সেই কাজগুলো শেষ হলেই নতুন মন্ত্রিসভা গঠন করা যায়। তবে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ প্রস্তুত রয়েছে। নির্দেশনা পেলেই নতুন মন্ত্রিসভা গঠনের কাজ শুরু করা হবে। নতুন মন্ত্রিসভা শপথ নিলে আগের মন্ত্রিসভা বাতিল হয়ে যাবে।

এদিকে আগামী দুই থেকে তিন দিনের মধ্যেই নির্বাচন কমিশন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ীদের গেজেট প্রকাশ করবে বলে জানা গেছে। গেজেট প্রকাশের পর স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি হিসেবে নিজে শপথ নেবেন এবং একাদশ জাতীয় সংসদের সদস্যদের শপথ করাবেন। আর মন্ত্রিসভা সদস্যদের শপথ গ্রহণের পর একাদশ জাতীয় সংসদের অধিবেশন আহ্বান করবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।