মাছের গাড়িতে করে ঢাকায় ইয়াবা পাচারকালে নুরুজ্জামান ও শফিকুল গ্রেপ্তার

ডেস্ক নিউজঃ দুই বছর ধরে ইয়াবার ব্যবসা চালিয়ে গেলেও আগে কখনো ধরা পড়েননি নুরুজ্জামান ও শফিকুল ইসলাম। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর মাদকবিরোধী অভিযানের মধ্যেও তাঁদের ব্যবসা চলছিল। সবশেষ তাঁরা কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে মাছের গাড়িতে করে ঢাকায় ইয়াবা এনেছিলেন। গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকায় র‍্যাব-১-এর একটি দল এই দুজনকে ইয়াবা বড়িসহ গ্রেপ্তার করে।

র‍্যাব জানায়, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে তারা রাজধানীর খিলক্ষেত এলাকার একটি বাড়িতে গতকাল দুপুরে অভিযান চালায়। সেখানে বিপুল পরিমাণ ইয়াবার চালানসহ নুরুজ্জামান (৩৪) ও শফিকুলকে (৩৯) গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁদের কাছে ২৭ হাজার ৫০০ ইয়াবা বড়ি পাওয়া গেছে।

র‍্যাব-১-এর উপ-অধিনায়ক মেজর ইশতিয়াক আহমেদ বলেন, নুরুজ্জামান ও শফিকুল কক্সবাজারের টেকনাফের সীমান্ত থেকে ইয়াবা আনতেন। সেখান থেকে ঢাকায় আনার পর খুচরা বিক্রেতাদের কাছে ইয়াবা বিক্রি করতেন। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নজর এড়াতে এবার তাঁরা মাছের গাড়িতে করে বৈদ্যুতিক তারের চ্যানেলের ভেতরে ইয়াবার চালান ঢাকায় এনেছিলেন।

র‍্যাবের ভাষ্য, নুরুজ্জামান ও শফিকুল জানিয়েছেন, তাঁরা দুই বছর আগে ইয়াবার ব্যবসা শুরু করেন। দুই বছরে তাঁরা একবারও ধরা পড়েননি। প্রথম দিকে তাঁরা ছোট ছোট চালান ঢাকায় আনতেন। পরে চালানের পরিমাণ বাড়িয়ে দেন। সম্প্রতি প্রতি সপ্তাহে তাঁরা কমপক্ষে ৭ থেকে ৮ হাজার ইয়াবার চালান ঢাকায় আনছিলেন। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর মাদকবিরোধী অভিযানেও তাঁরা থামেননি। জব্দ করা ইয়াবা বড়িসহ গ্রেপ্তার হওয়া দুজনকে রামপুরা থানায় হস্তান্তর করেছে র‍্যাব।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।