রোহিঙ্গাদের জন্য ইরানের হাসপাতাল

ডেস্ক:
মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য ২০ শয্যার একটি ভ্রাম্যমান হাসপাতাল চালু করেছে ইরান। দেশটির রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির উদ্যোগে সোমবার এ হাসপাতাল স্থাপন করা হয়। ইরানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম পার্স টুডের এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা ডাব্লিউএইচও’র প্রতিনিধির উপস্থিতিতে হাসপাতাল উদ্বোধন করা হয়েছে। হাসপাতালে নারী ও প্রসূতি বিভাগসহ বেশ কয়েকটি বিভাগ রয়েছে। এখানে রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি স্থানীয়রাও চিকিৎসা নিতে পারবেন।

গত ২৫ আগস্ট রাখাইনে সহিংসতার পর রোহিঙ্গাদের ওপর নিধনযজ্ঞ চালানো শুরু করে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। হত্যা ও ধর্ষণ থেকে বাঁচতে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে ছয় লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা। জাতিসংঘ এই ঘটনাকে জাতিগত নিধনযজ্ঞের ‘পাঠ্যপুস্তকীয় উদাহরণ’ বলে উল্লেখ করেছে। একে নিধনযজ্ঞ বলেছে যুক্তরাষ্ট্রও।

ইরানের উপ-রাষ্ট্রদূত শাফিয়ি হাসপাতাল প্রতিষ্ঠায় সহযোগিতার জন্য বাংলাদেশের সরকার ও সেনাবাহিনীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ইরান প্রথম থেকেই রোহিঙ্গা শরণার্থীদের প্রতি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। হাসপাতাল পরিচালনার ব্যয়ও ইরান বহন করবে। হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার জন্য ইরানকে ধন্যবাদ জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা ডাব্লিউএইচও।

শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।