হোয়াইক্যং খারাংখালী সীমান্তে বড় ধরনের ইয়াবার চালান খালাস নিয়ে লংকাকান্ড

হোয়াইক্যং খারাংখালী সীমান্তে বড় ধরনের ইয়াবার চালান খালাস নিয়ে লংকাকান্ড

হোয়াইক্যংয়ের খারাংখালী সীমান্ত পয়েন্ট দিয়ে একটি বড় ধরনের ইয়াবার চালান খালাস এবং ভাগ-বাটোয়ারা নিয়ে এলাকায় তোলপাড়ের সৃষ্টি হয়েছে। এরই সুত্রধরে আইন-শৃংখলা বাহিনীর অভিযানে ইয়াবা উদ্ধারের ঘটনায় পুরো এলাকা জুড়ে তুমুল হৈ চৈ চলছে।

তথ্যানুসন্ধানে জানা যায়, ১লা মে ভোররাতে হোয়াইক্যংয়ের খারাংখালী সীমান্ত দিয়ে মিয়ানমারের মন্ডু জেলার আকিয়াব থানার নাগাকুরার কুয়ার বিলের নুরুল ইসলাম ও আইয়ুব আলী এবং কেয়ারী পাড়ার ছৈ থৈা মং প্রকাশ কেটি রাখাইনের প্রেরিত ৪লাখ ইয়াবার চালান হোয়াইক্যং কম্বনিয়া পাড়ার আবুল কাশেমের পুত্র দিলদার আহমদ প্রকাশ দিল্লা, পশ্চিম মহেশখালীয়া পাড়ার মৃত মোহাম্মদ আলীর পুত্র শামসুল আলম, পূর্ব মহেশখালীয়াপাড়াস্থ নতুন পাড়ার জহির আহমদের পুত্র আব্দুর রহিম প্রকাশ মেজর সিন্ডিকেটের জন্য প্রেরণ করে। ভোর হওয়ায় এই মাদকের চালানের কিছু অংশ (৭কার্ড) নাছর পাড়ার কয়েকজন লোক ছিনিয়ে নেয়। ছিনতাইকৃত ইয়াবার চালান উদ্ধার করতে হৈ চৈ শুরু হলে এই খবর আইন-শৃংখলা বাহিনীর কানে পৌঁছে যায়। তখন আইন-শৃংখলা রক্ষায় নিয়োজিত বিশেষ বাহিনীর অভিযানে ইয়াবা জব্দের ঘটনায় এই ঘটনার সত্যতা বেরিয়ে আসে।
এই ব্যাপারে আব্দুর রহিম প্রকাশ মেজর বলেন, এই বিষয়ে আমি কোন কিছুই জানিনা। আমি এই ধরনের কাজে জড়িত না। ###

টেকনাফ টুডে

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ