টেকনাফ-সেন্টমার্টিন পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল শুরু

 

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ … টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌ-রুটে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল শুরু হয়েছে। ১ নভেম্বর শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টায় টেকনাফের দমদমিয়া জাহাজঘাট থেকে পর্যটকবোঝাই জাহাজ প্রমোদতরী, কেয়ারী ক্রুজ এন্ড ডাইন, এমভি ফারহান ক্রুজ এ ৩টি জাহাজ ১২ শতাধিক পর্যটক নিয়ে সেন্টমার্টিনের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। বেলা সাড়ে ১২টার দিকে পর্যটকবাহী জাহাজ সেন্টমার্টিনদ্বীপে পৌছলে স্থানীয়রা পর্যটকদের স্বাগত জানান। শর্ত সাপেক্ষে এসব জাহাজকে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌ-রুটে চলাচলের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে।
এদিকে ঝুঁকিপূর্ণ জেটি নিয়ে সংস্কারের দাবী উঠলেও তা আমলে আনা হয়নি। তবুও শংকা নিয়েই আনন্দ ভ্রমনে সেন্টমার্টিন ভীড়বে দেশবিদেশী ভ্রমন প্রিয়াসীরা। ঈদের ছুটিতে সেন্টমার্টিন ভ্রমণেচ্ছুক অসংখ্য দেশি-বিদেশি পর্যটক কক্সবাজারে বেড়াতে আসেন। কিন্তু টেকনাফ-সেন্টমার্টিন জলপথে জাহাজ চলাচলের অনুমতি না পাওয়ায় হাজার হাজার পর্যটক হতাশ হয়ে বাড়ি ফিরেন। অবশেষে শর্তসাপেক্ষে ৩টি জাহাজকে সমুদ্রপথে চলাচলের অনুমতি দেয়া হয়। আবহাওয়া অনুকূলে না থাকায় এতদিন সেন্টমার্টিনগামী জাহাজসমূহকে চলাচলের অনুমোদন দেয়া হয়নি। কিন্তু আবহাওয়া অধিদপ্তরের মতে এখন সাগর শান্ত থাকায় জাহাজ চলাচলের অনুমতি প্রদান করা হয়েছে। তবে শর্ত হিসাবে ফিটনেস লাইসেন্স থাকা, অতিরিক্ত যাত্রীবোঝাই না করা এবং আবহাওয়া অনকূলে থাকাকে বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এসব শর্ত লঙ্ঘন করলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে শাস্তি দেয়া হবে।
সেন্টমার্টিনদ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুর আহমদ বলেন, ‘পর্যটকদের বরণে দ্বীপে পর্যটক ব্যবসায়ীরা হোটেল ও কটেজগুলো সাজিয়ে রেখেছেন। জাহাজ চলাচলের খবর দ্বীপে পৌঁছানোর পর সব শ্রেণি পেশার মানুষের মধ্যে প্রাণ চাঞ্চল্য ফিরেছে। তবে বর্তমানে জেটির অবস্থা খুবই কাহিল। পর্যটকবাহী জাহাজ ভিড়ার উপযোগী নয়। জেটি এবং পল্টন উভয়টির খুব খারাপ অবস্থা। বিষয়টি নিয়ে টেকনাফ উপজেলা মাসিক উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সভায় একাধিকবার উত্থাপন করা হলেও জেলা পরিষদ থেকে এখনও জেটি মেরামতের উদ্যোগ নেয়া হয়নি। দ্বীপের মানুষ সবসময় পর্যটকবান্ধব। পর্যটন মৌসুমে যাতে দেশী-বিদেশী পর্যটক শিক্ষার্থীরা নিরাপদে দ্বীপে ভ্রমণ করতে পারেন সেজন্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য সবরকমের প্রস্ততি নেয়া হয়েছে’।##

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।