সেন্টমার্টিনে ডাষ্টবিন ও ভ্যান গাড়ি হস্তান্তর করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর

দেশের একমাত্র প্রবালদ্বীপে সেন্টমার্টিনে ডাষ্টবিন ও ময়লা টানার ভ্যান গাড়ি হস্তান্তর করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর। ২৫ ফেব্রুয়ারী দুপুরে পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. এ কে এম রফিক আহমদ সেন্টমার্টিনদ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদকে বরাদ্দকৃত পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের স্টিকারযুক্ত ডাষ্টবিন ও ময়লা টানার একটি ভ্যানগাড়ী হস্তান্তর করেন। ইউপি পরিষদের পক্ষে এসব মালামাল গ্রহণ করেন ইউপি মেম্বার হাবিব উল্লাহ হাবিব।
সেন্টমার্টিনদ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষে এসব মালামাল গ্রহণকালে হাবিবুর রহমান মেম্বার বলেন, পর্যটকের কথা বিবেচনা করে ‘জনবল আর ভ্যানগাড়ী আরো বাড়াতে হবে, পাশাপাশি পর্যটকদের আরও সচেতন করতে হবে এবং স্থানীয়দের সচেতন করতে কাজ করতে হবে। এছাড়া জাহাজে আধাঘন্টা করে মাইকিংয়ের মাধ্যমে প্রচার করতে হবে। টিকেট দেয়ার সময় গুরুত্ব সহকারে বলে দিতে হবে সেন্টমার্টিন ভ্রমনে গেলে কি কি করা যাবে আর কি কি করা যাবেনা। প্লস্টিকের বিকল্প ব্যবহার প্রযুক্তি আনতে হবে’।
এসময় পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. একেএম রফিক আহমদ বলেন, ‘পরিবেশ রক্ষার জন্য এলাকার সকল মানুষকে সচেতন হতে হবে। পলিথন ও অপচনশীলদ্রব্য যেখানে সেখানে ফেলা যাবেনা। দ্বীপে পলিথিন ও প্লস্টিক জাতীয়দ্রব্য ব্যবহার বন্ধ করার উদ্যোগ নিতে হবে। পুরাতন পলিথিন ও প্লাস্টিক সামগ্রী সংগ্রহ করে পুড়িয়ে ফেলতে হবে। সকল আবাসিক হোটেল ও রিসোর্টকে এ ব্যাপারে দায়িত্ববান হতে হবে। রিসোর্ট ও দোকানের সামনে নিজ দায়িত্বে ময়লা ফেলার ডাস্টবিন রাখতে হবে। তাছাড়া আগত সকল পর্যটকদেরকেও ময়লা নির্দিষ্ট স্থানে ফেলতে উৎসাহিত করতে হবে। তবেই প্রকৃতির দান সেন্টর্মাটিনদ্বীপ ভাল থাকবে’। পরিবেশ অধিদপ্তরের পদস্থ কর্মকর্তা, পরিবেশকর্মী, স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, পুলিশ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ