টেকনাফে প্রেম করে বিয়ের দু’বছরের মাথায় গৃহবধুর লাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক [] টেকনাফে প্রেম করে বিয়ের দু’বছরের মাথায় লাশ হয়েছেন কুলছুমা বেগম (১৮) নামে এক গৃহবধূ।
ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের নয়াপাড়া এলাকায়। ১৭ মে সাবরাং ইউনিয়নের দক্ষিণ নয়া পাড়া (পুরানপাড়া) গ্রামের স্বামীর বাড়ি থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত কুলছুমা একই গ্রামের আলী আহমদ এর মেয়ে।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, প্রায় ২ বছর আগে কুলছুমার সাথে একই গ্রামের খুইল্যা মিয়ার ছেলে নাছিরের সাথে প্রেমের সম্পর্কে বিয়ে হয়। বিয়ের পর স্বামীর বাড়িতেই থাকতেন কুলছুমা। তবে তাদের মধ্যে পারিবারিক কলহ ছিল। কী কারণে তার মৃত্যু হয়েছে তা বলা যাচ্ছে না। এলাকাবাসীর দাবী স্বামী ও শ্বশুর বাড়ীর লোকজন তাকে নির্মম ভাবে হত্যা করে স্বাভাবিক মৃত্যু দাবী করে দাফনের পাঁয়তারা করছিল। এরই মাঝে নিহত গৃহবধুর গোসলের সময় আসল রহস্য ফাঁস হলে শ্বসুর, শ্বাসুড়ীসহ অন্যান্য সদস্য তকৗশলে পালিয়ে যায়।
নিহতের ভাতিজা সাইফুল ইসলাম বলেন, ১৭ মে ভোররাতে তার ফুফুর মৃত্যু হয়েছে বলে খবর দেন। খবর পেয়ে পাড়া প্রতিবেশী ও আত্বীয় স্বজনরা এসে কাফন দাফনের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। মৃতকে গোসল দিতে গিয়ে তার গলা ও শরিরে বিভিন্ন জখমের চিহ্ন দেখে সন্দেহ হওয়ায় থানায় খবর দিলে ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে নিয়ে আসে থানা পুলিশ।
টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ প্রদীপ কুমার দাশ জানান, রবিবার দুপুরে স্বামীর ঘর থেকে কুলছুমা নামে এক গৃহ ধুর মরদেহ উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ