টেকনাফের হ্নীলায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করলোএক যুবক!


নিজস্ব প্রতিবেদক
টেকনাফের হ্নীলায় বাড়ির দরজা বন্ধ করে ছাউনির পাখা চালু করে গলায় ফাঁস লাগিয়ে কফিল আহমদ নামে এক যুবক আত্মহত্যা করেছে। তবে কি কারণে আত্মহত্যা করেছে তার কারণ জানা যায়নি। সে হ্নীলা ইউনিয়নের আশ্রয়কেন্দ্র এলাকার শাহ আলমের ছেলে।

১০সেপ্টেম্বর বিকালে হ্নীলা রাসুলাবাদ এলাকায় শাহ আলমের পুত্র কফিল উদ্দিন (৩২) এর শয়ন কক্ষে গলায় ফাঁস লাগানো ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত ব্যক্তি স্ত্রী হারা দুই ছেলে-মেয়ের জনক ছিল। কি কারণে ঐ ব্যক্তি আত্নহত্যা করেছে তা স্পষ্ট করে জানা যায়নি। তবে মানুষের ধারণা নিহত ব্যক্তি মাদকাসক্ত এবং বেকার ছিল। হয়তো অভাব যন্ত্রণায় সে চরম হতাশায় আত্নহত্যা করেছে বলে ধারণা।

এই ঘটনার খবর পেয়ে সন্ধ্যারদিকে টেকনাফ মডেল থানার এসআই রাসেল আহমদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং মার সাথে কথা বলে কোন ধরনের অভিযোগ না থাকায় লাশ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়।

স্থানীয় ইউপি রাশেদ মাহমুদ আলী, কফিল শয়ন কক্ষে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্নহত্যার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত ওসি এবিএমএস দোহা সাংবাদিকদের জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পরিবার-পরিজনের সাথে আলোচনা স্বাপেক্ষে দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ