টেকনাফে সাড়ে তিন লাখ ইয়াবা উদ্ধার

টেকনাফের কেওড়া বাগান থেকে সাড়ে তিন লাখ ইয়াবা উদ্ধার করল বিজিবি

হেলাল উদ্দিন,টেকনাফ :: কক্সবাজারের টেকনাফে মিয়ানমার থেকে আবারও বেড়েছে ইয়াবা পাচার।রবিবার কোস্টগার্ড সাড়ে ৫ লাখ ইয়াবা উদ্ধারের পর আরও সাড়ে তিন লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে বিজিবি।

মিয়ানমার থেকে নাফনদী দিয়ে টেকনাফে পাচারকালে পাচারকারীর ফেলে যাওয়া সাড়ে ৩ লাখ ইয়াবা বড়ি মিলল কেওড়া বাগানের জঙ্গলে।

ইয়াবার চালানটি মঙ্গলবার রাত নয়টার দিকে টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের লেদার ছ্যুরিখাল এলাকার নাফনদীর কেওড়া বাগান থেকে ইয়াবা উদ্ধার করা করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ ( বিজিবি) সদস্যরা।।

এ তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ ২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান।

তিনি বলেন, মঙ্গলবার রাতে টেকনাফ ২বিজিবির আওতাধীন হ্নীলার‍ লেদার সীমান্ত ফাঁড়ির দায়িত্বপূর্ণ এলাকার ছ্যুরিখাল ও নাফনদীর এলাকা দিয়ে মিয়ানমার থেকে ইয়াবার একটি বড় চালান বাংলাদেশে পাচার হতে পারে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে লেদা সীমান্ত চৌকির একটি বিশেষ টহলদল দ্রুত ওই‌ এলাকায় গমন করে অবস্থান গ্রহণ করে।

রাত সাড়ে নয়টার দিকে উক্ত টহলদল কয়েকজন ব্যক্তিকে একটি নৌকাযোগে লেদার ছ্যুরিখাল সংলগ্ন কেওড়া বাগানের জঙ্গলে প্রবেশ করতে দেখে বিজিবি সদস্যরা তাদেরকে চ্যালেঞ্জ করে।

দুষ্কৃতকারীরা দূর থেকে টহল দলের সদস্যদের উপস্থিতি লক্ষ্য করে কেওড়া বাগানের জঙ্গলের আড় ব্যবহার করে অন্ধকারের সুযোগ নিয়ে নৌকাটি বিপরীত দিকে ঘুরিয়ে নাফ নদীর শুন্য রেখা অতিক্রম করে মিয়ানমারের অভ্যন্তরে চলে যায়।

পরবর্তীতে টহলদলের সদস্যরা কেওড়া বাগানের জঙ্গলে তল্লাশি করে ইয়াবা পাচারকারীদের ফেলে যাওয়া আনুমানিক মূল্য ১০ কোটি ৫০ লাখ টাকার সাড়ে তিন লাখ ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। পাচারকারীদের আটকের জন্য পার্শ্ববর্তী ওই এলাকায প্রায় ২ ঘন্টা যাবৎ অভিযান পরিচালনা করা হলেও কোনো পাচারকারীকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

তিনি বলেন, উদ্ধার করা মালিকবিহীন ইয়াবা বড়িগুলো বর্তমানে ব্যাটালিয়ন সদরের জমা রাখা হয়েছে। পরবর্তীতে তা উর্দ্ধতন কর্মকর্তা, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও গণমাধ্যমকর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে।

 

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ