আত্মসমর্পণকারী ১০১ শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে আদালতে চার্জ গঠন

নিজস্ব প্রতিবেদক
টেকনাফের বহুল আলোচিত অস্ত্র মামলায় আত্মসমর্পণকারী ১০১ জন শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে আদালতে অস্ত্র মামলায় চার্জ গঠন করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ মো. ঈসমাইলের বিচারিক আদালতে এ চার্জ গঠন করা হয়। এরআগে কারাগার থেকে সকালে ১০১ জন আসামীকে আদালতে হাজির করা হয়।

অভিযুক্ত ব্যক্তিরা সবাই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত ইয়াবা ব্যবসায়ী। অভিযুক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে রয়েছেন টেকনাফের বিতর্কিত সাবেক সাংসদ আবদুর রহমান বদির চার ভাই ও ১২ আত্মীয়সহ ১৬ জন।

২০১৯ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি টেকনাফ পাইলট উচ্চবিদ্যালয় মাঠে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের হাতে সাড়ে তিন লাখ ইয়াবা ও ৩০টি আগ্নেয়াস্ত্র তুলে দিয়ে আত্মসমর্পণ করেন শীর্ষ ১০২ জন ইয়াবা ব্যবসায়ী। অনুষ্ঠানে পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারীও উপস্থিত ছিলেন। আত্মসমর্পণকারী রাসেল নামের একজন কারাবন্দী অবস্থায় মারা গেছেন।

যেদিন ইয়াবা ব্যবসায়ীরা আত্মসমর্পণ করেন, সেদিনই টেকনাফ মডেল থানায় অভিযুক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মাদক ও অস্ত্র আইনে পৃথক দুটি মামলা করেন একই থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) শরীফ ইবনে আলম।

গত জানুয়ারী মাসে এদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলার দুটোর তদন্তকারী কর্মকর্তা ও টেকনাফ মডেল থানার সেই সময়ের পরিদর্শক এবিএমএস দোহা।

আত্মসমর্পণকারীর একজনের মৃত্যু হওয়ায় তাঁকে মামলা দুটো থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। অপর ১০১ জন মাদক ও অস্ত্র ব্যবসার সঙ্গে জড়িত প্রমাণ পায় পুলিশ। অভিযুক্ত ব্যক্তিরা সবাই কক্সবাজার কারাগারে আছেন।

Print Friendly, PDF & Email
শর্টলিংকঃ